মেইন ম্যেনু

শ্রীমঙ্গলে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে হামলা : আহত-২, একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক

unnamed (2)সৌরভ আদিত্য, শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধি : শ্রীমঙ্গল উপজেলার আশিদ্রোন ইউনিয়নের নোয়াবাড়ী গ্রামে ধানের ক্ষেত নিয়ে সংঘর্ষ হয়ে প্রতিপক্ষের আঘাতে ক্ষেতের মালিক হেলাল মিয়া ও তার ছোট ভাই গুরুতর আহত হয়েছেন। ঘটনাটি শুক্রবার (১৯ আগস্ট) সকাল সাড়ে ১১টায় আশিদ্রোন নোয়াবাড়িতে ঘটে। আশিদ্রোন গ্রামের মরহুম আমিন উল্ল্যার পুত্র হেলাল মিয়া (৩৫) ও তার ছোট ভাই শামছুল ইসলাম (২২) আহত হয়েছেন। আহতের প্রথমে শ্রীমঙ্গল সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পরে হেলাল মিয়ার অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় দুপুরে তাকে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে রেফার করা হয়। এ রিপোট লেখা পর্যন্ত গুরুতর আহত হেলাল মিয়া মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে ইউনিট ২ এর (এস/৩০ নং ওয়ার্ডে )চিকৎসাধীন রয়েছেন। হেলাল মিয়াকে প্রতিপক্ষরা দেশিয় অস্ত্র দা, কাচি, কাচের বর্গা দিয়ে তার মাথা, চোখ ও বুকে প্রচুর জখম করে। এ ঘটনায় শামছুল ইসলাম বাদী হয়ে মৃত ওস্তার মিয়ার পুত্র সালাম মিয়া (৩৫), রমজান মিয়া (৪০), মৃত সমছু মিয়ার পুত্র ফরিদ মিয়া (৪০), শফিক মিয়ার পুত্র হেলাল মিয়া (২২), ওস্তার মিয়ার পুত্র চান মিয়া (৪৫)কে আসামী করে শ্রীমঙ্গল থানায় মামলা দায়ের করেছেন। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে শ্রীমঙ্গল থানার এসআই রাব্বি জানান-এ ঘটনায় পুলিশ সালাম মিয়া (৩৫) ও ফরিদ মিয়াকে শ্রীমঙ্গলের কালিঘাট রোড থেকে আটক করেছে। প্রত্যক্ষ সুত্রে জানা যায়- দীর্ঘদিন থেকে সালাম মিয়া গংরা তাদের পালিত হাঁস দিয়ে নোয়াবাড়ীস্থ ময়না মিয়ার বাড়ীর পার্শ্বে ধানী জমির রোপনকৃত ধান ক্ষতি সাধন করিয়া আসিতে ছিল। প্রতিদিনের ন্যায় আজ সকাল সাড়ে ১০টায় পুনরায় পালিত হাঁস ছেড়ে ধানী জমির ক্ষতি সাধন করিলে হেলাল মিয়া তাতে বাঁধা প্রধান করেন। এ সময় রমজান মিয়া উত্তেজিত হয়ে তাকে অকথ্য ভাষায় গালাগালি করে তাদের উপর, দা, কাচি, কাঠের রোলসহ লাঠিশোটা নিয়ে তাদের উপর হামলা চালায়। এ সময় তাদের হাল্লা চিৎকার শুনে আশ পাশের লোকজন ছুটে আসলে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। এরিপোর্ট লেখা পর্যন্ত আটককৃতরা শ্রীমঙ্গল থানা হাজতে রয়েছেন বলে এহসান বিন মুজাহিদ জানানা।






মন্তব্য চালু নেই