মেইন ম্যেনু

সংঘর্ষ, দখল-বর্জনের মধ্যদিয়ে ইউপি ভোট শেষ

বর্জন, সহিংসতা আর অনিয়ম-কারচুপির অভিযোগের মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ। আজ শনিবার ৬ষ্ঠ ও শেষ ধাপে ৬৯৮টি ইউনিয়নে ভোটগ্রহণ করা হয়। সকাল আটটায় শুরু হয়ে বিকাল চারটা পর্যন্ত চলে একটানা ভোটগ্রহণ। শেষ ধাপের ভোটে সহিংসতা তুলনামূলক কমলেও দেশের বেশ কিছু জায়গায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এছাড়া অনিয়ম ও কারচুপির অভিযোগ এনে বিএনপির প্রার্থীসহ ৩৫ জন নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন।

ফেনী ও ময়মনসিংহে নির্বাচনী সহিংসতায় দুইজন মারা গেছেন। এছাড়া নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুর, ঝিনাইদহ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, মুন্সীগঞ্জ, টাঙ্গাইল, সিরাজগঞ্জ, সাভারসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে সহিংসতার খবর পাওয়া গেছে।

ফেনীর সোনাগাজী উপজেলায় ইউপি নির্বাচন নিয়ে দু’পক্ষের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হয়ে নুর হোসেন শিপন নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। এতে গুলিবিদ্ধ হয়েছেন মফিজুল ইসলাম নামে এক পুলিশ সদস্যসহ পাঁচজন৷ শনিবার বেলা ১১টা থেকে দুপুর সাড়ে ১২টার মধ্যে উপজেলার চরচান্দিয়া ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে ভোটগ্রহণের সময় চর ভৈরব হাজি তোফায়েল আহমেদ উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে দফায় দফায় এই সংঘর্ষ হয়।

ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ের সালটিয়া ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে একটি কেন্দ্রে দুই ইউপি সদস্য প্রার্থীর মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় দৌড়াতে গিয়ে পড়ে একজন নিহত হয়েছেন। এতে উভয় পক্ষের কমপক্ষে ৩০ জন আহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে পুলিশ। গুলিবিদ্ধ হয়েছেন আরও তিনজন। শনিবার দুপুরে ওই ইউনিয়নের পুকুরিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভোট কেন্দ্রে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ সদর ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে অস্ত্রের মুখে একটি ভোটকেন্দ্র থেকে চেয়ারম্যান পদের ব্যালট ও কয়েকটি সিল লুট করে নিয়ে গেছে দুর্বৃত্তরা। শনিবার সকাল সোয়া ১০টার দিকে আগ্নেয়াস্ত্র হাতে একদল যুবক নাওঘাট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র থেকে ব্যালট ও সিল লুট করে নিয়ে যায়।

এবারই প্রথমবারের মতো দলীয় প্রতীকে অনুষ্ঠিত হয় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন। আগের যেকোনো নির্বাচনের চেয়ে এবার সহিংসতার ঘটনা বেশি ঘটে। আগের পাঁচ পর্বে দেশের বিভিন্ন স্থানে সংঘর্ষে শতাধিক লোক মারা যান। প্রাণহানির ঘটনায় এবারের নির্বাচন ব্যাপক সমালোচিত হয়। বিশেষ করে নির্বাচন কমিশনের ভূমিকা ও আন্তরিকতা নিয়ে অনেকে প্রশ্ন তুলেন।






মন্তব্য চালু নেই