মেইন ম্যেনু

সংবাদ-টকশোতে নজর রাখবে সরকার

তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু জানিয়েছেন, এখন থেকে বেসরকারি স্যাটেলাইট চ্যানেলের প্রচারিত অনুষ্ঠান, টকশো ও সংবাদ নিয়মিত মনিটরিং করার জন্য কমিটি রয়েছে। তারা নিয়মিত নজর রাখবে। কারো বিরুদ্ধে আভিযোগ পাওয়া গেলে সরকার কঠোর ব্যবস্থা নেবে।

রোববার জাতীয় সংসদে সংরক্ষিত মহিলা আসনের সাংসদ ফজিলাতুন নেসা বাপ্পীর লিখিত প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব তথ্য জানান।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, সরকারি ও জাতীয় ইলেকট্রনিক গণমাধ্যম হিসাবে বাংলাদেশ টেলিভিশন জাতির কাছে পুরোপুরি দায়বদ্ধ। বাংলাদেশ টেভিশন হতে বিকৃত ও অসত্য তথ্য প্রদান করে জনগণকে বিভ্রান্ত করার মতো কোন অনুষ্ঠান না টক শো প্রচার করার সুযোগ নেই।

তিনি বলেন, জাতীয় সম্প্রচার নীতিমালা ২০১৪ এর তৃতীয় অধ্যায়ের ৩.২.২ অনুচ্ছেদে বিভ্রান্তিকর ও অসত্য তথ্য বা উপাত্ত পরিহারের জন্য বলা হয়েছে। উক্ত নীতিমালা কার্যকর করার জন্য ‘সম্প্রচার আইন, ২০১৫’ ও ‘সম্প্রচার কমিশন আইন,২০১৫’ প্রণয়ন করা হয়েছে ।

হাসানুলহক ইনু বলেন, প্রস্তাবিত আইন দুইটি প্রনীত হলে ‘সম্প্রচার কমিশন’ প্রতিষ্ঠিত হবে এবং টকশোর জন্য সুনির্দিষ্ট মানদন্ড নির্ধারণ করা হবে। ফলে টকশোগুলিতে বিকৃত ও অসত্য তথ্য উপস্থাপনের সুযোগ থাকবে না। তবে, এছাড়াও বর্তমানে বেসরকারি স্যাটেলাইট চ্যানেল কর্তৃক প্রচারিত অনুষ্ঠান, টকশো ও সংবাদ নিয়মিত মনিটরিং করার জন্য একটি কমিটি রয়েছে।

পিনু খানের প্রশ্নের উত্তরে তথ্যমন্ত্রী জানান, বেসরকারি মালিকানাধীন টেলিভিশন চ্যানেল বা পত্রিকায় ব্যক্তি স্বার্র্থ উদ্ধার এবং ব্যক্তিগত শক্রতার বা বিরোধীকে লক্ষ্য করে বিরোধী পক্ষের বিরুদ্ধে নানা প্রকার কল্পকাহিনী বা মিথ্যা বানোয়াট সংবাদ প্রচার করা হলে সেক্ষেত্রে সংক্ষুব্ধ ব্যক্তি দেশের প্রচলিত আইনে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারবেন।






মন্তব্য চালু নেই