মেইন ম্যেনু

সকাল সকাল এই ভুলগুলো আপনিও করছেন না তো?

সারা দিনের মাঝে সকালবেলাটিই সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ। সকালবেলায় আমাদের মস্তিষ্ক সবচেয়ে ভাল কাজ করে। সকালবেলায় আপনি যা করবেন তার প্রভাব সারাদিন থাকবে। আমরা অনেকেই অভ্যাসবশত এমন কিছু কাজ করে থাকি যা আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। সকালবেলার এই ছোটখাটো অভ্যাসগুলোর পরিবর্তন আমাদের জীবনকে আরও সুন্দর এবং স্বাস্থ্যকর করে তুলবে।

১। লাফ দিয়ে বিছানা ত্যাগ করা

অ্যালার্মে আওয়াজে লাফ দিয়ে ঘুম থেকে না উঠে ধীরে সুস্থ আস্তে আস্তে ঘুম থেকে উঠার চেষ্টা করুন। সম্ভব হলে ডানদিকে ঘুরে আস্তে আস্তে শরীরের সাথে ভারসাম্য রেখে বিছানা ত্যাগ করুন। সকালে আপনার পেশী সমূহ কিছুটা আড়ষ্ট থাকে, তাই সময় নিয়ে উঠা উচিত। এতে পেশী সমূহ সহজ হওয়ার সময় পাবে।

২। জানলার পর্দা টান দিয়ে ঢেকে দেওয়া

অনেকেই ঘুম থেকে উঠে জানলার পর্দা টান দিয়ে দেয়। এতে ঘরে রোদের আলো প্রবেশ করতে পারে না। জানলার পর্দা সরিয়ে ঘরে সূর্যের আলো প্রবশের সুযোগ করে দিন। সূর্যের আলো আপনার ভিতরে ইতিবাচক মনোভাব তৈরি করতে সাহায্য করবে। যা সারাদিনের কাজের এনার্জি দেবে।

৩। স্ট্রেচিং না করা

আমরা যখন ঘুম থেকে উঠি তখন আমাদের পেশী বিশেষত ঘাড়, পায়ের পেশী কিছুটা শক্ত থাকে। ঘুম থেকে উঠে স্ট্রেচিং না করলে এই শক্তভাবটা পেশীতে থেকে যায়। বিছানা থেকে উঠে হাত, পা, ঘাড়, স্ট্রেচ করুন এবং কয়েকবার জোরে জোরে শ্বাস নিন। এটি পেশীর জড়তা কাটিয়ে দেবে।

৪। কফি দিয়ে দিন শুরু করা

বেশির ভাগ মানুষ সকালে চোখ মেলে চা অথবা কফির কাপে চুমুক দেওয়ার অভ্যাস। কফি অথবা দুধ চায়ের পরিবর্তে গ্রিন টি অথবা লাল চা পান করার অভ্যাস গড়ে তুলুন।

৫। ফোন চেক করা

ঘুম থেকে উঠে মোবাইল অথবা মেইল অনেকেই চেক করে থাকেন। সবসময় যে মেইল বা মোবাইল থেকে ভাল খবর পাবেন তা কিন্তু নয়। অনকে সময় ছোট একটি খারাপ সংবাদ আপনার দিনটিকে খারাপ করে তুলতে পারে।

৬। সকালের নাস্তা না খাওয়া

সারাদিনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ন খাবারটি হল সকালের নাস্তা। সকালের নাস্তা আপনাকে সারাদিনের কাজের শক্তি দিয়ে থাকে। সকালে পুষ্টিকর খাবার খাওয়ার চেষ্টা করুন।

৭। পরিকল্পনা না করা

আপনি কাল কী করবেন, কোন পোশাকটি পরবেন তা কি ঠিক করে রেখেছেন? অধিকাংশ মানুষ এই ছোট ছোট বিষয়গুলোকে গুরুত্ব দেন না। এর জন্য কোন পূর্ব পরিকল্পনা করেন না। পরের দিনে কী করবেন, কী করবেন না সেটা পরিকল্পনা করে রাখুন।






মন্তব্য চালু নেই