মেইন ম্যেনু

সত্যিকার কমনীয় মানুষদের ১০ অভ্যাস

১. তারা ইচ্ছাকৃতভাবেই কিছুটা দুর্বলতা দেখান
কমনীয় মানুষরা যাদের সঙ্গে সাক্ষাৎ হয় তাদের সঙ্গেই কোনো অঘোষিত প্রতিযোগিতায় জিততে চান না। এমনকি প্রকৃতপক্ষে তারা সক্রিয়ভাবেই হারতে চান।

এরা অন্যের প্রতি প্রশংসাসূচক। এবং অন্যের দ্বারা অভিভুত হন। এমনকি এরা কোনো দুর্বলতা বা ব্যর্থতাও স্বীকার করে নেন। এরা জানেন লোকে হয়তো কারো কৃত্রিম বা লোক দেখানো সদা আত্মবিশ্বাসী আচরণে সাময়িকভাবে অভিভুত হন। কিন্তু আখেরে সকলেই প্রকৃত খাঁটি আচরণ পছন্দ ও মূল্যায়ন করেন।

২. এরা দেখান যে আপনার সঙ্গে সাক্ষাৎ হওয়ায় এরা সত্যিকার অর্থেই আনন্দিত
এরা চোখাচোখি করেন। আপনি হাসলে এরাও হাসেন। আপনি ভ্রুকুটি করলে এরাও ভ্রুকুটি করেন। আপনি মাথা নাড়ালে এরা মাথা নাড়ান। সহজে জানানোর উপায়, এরা আপনার আচরণের নকল করে। কারণ আপনি কী বলছেন তারা তা মনোযোগ দিয়ে শুনছেন। এমনটা করার মধ্য দিয়ে দুজন মানুষের বন্ধন আরো ঘনিষ্ঠ হয়। আর কমনীয়তার মূল কথাই হলো বন্ধন।

৩. এরা অসঙ্গতির বদলে বরং সঙ্গতির সন্ধান করেন
দুর্ভাগ্যক্রমে, বিপরীতে যাওয়াটা একটি সহজ অভ্যাস সহজেই যার ফাঁদে পড়া যায়। আর একমত হওয়ার চেয়ে বরং ভিন্নমত পোষণ করার কারণগুলো সহজেই এবং স্বয়ংক্রিয়ভাবে খুঁজে বের করা যায়। আর স্বয়ংক্রিয়ভাবেই একটি ভিন্ন অবস্থান গ্রহণ করা অনেক সহজ। আর কোনো বিষয়ে তর্কে জড়িয়ে পড়াটাও বেশ সহজ।

আর কমনীয় মানুষেরা সক্রিয়ভাবে বা নিজের অজান্তেই দ্বিমত পোষণ করতে চান না। তারা বরং সবসময়ই একমত হওয়ার কারণ সন্ধান করেন। এরপর যদি যথাযথ হয় তারা তখন ভদ্রতার সঙ্গে শুধু নিজেদের ভিন্নমত পোষণের কথা প্রকাশ করবেন। আর এভাবেই তারা একটি অসাধারণ কথপোকথন সৃষ্টিতে সহায়তা করেন।

৪. তারা বাছাই করে স্পর্শের ক্ষমতা ব্যবহার করেন
যৌনতাহীন স্পর্শও অবিশ্বাস্যভাবে শক্তিশালি। স্পর্শ আচরণকে প্রভাবিত করতে পারে, সম্মতির সম্ভাবনা বৃদ্ধি করতে পারে, যে ব্যক্তি স্পর্শ করছেন তাকে আরো আকর্ষণীয় এবং বন্ধুভাবাপন্ন মনে হতে পারে। এমনকি এর মাধ্যমে আপনি বিক্রি করায়ও সফল হবেন।

৫. এরা প্রায়ই নিজেকে বোকাটে হিসেবে উপস্থাপন করেন
কমনীয় লোকেরা মাঝেমধ্যেই নিজেকে এমন পরিস্থিতিতে ফেলতে পছন্দ করেন যেখানে তারা তাদের সেরা অবস্থানে থাকেন না। আর বিস্ময়করভাবে লোকেও এ কারণে তাদেরকে সম্মান করার প্রবণতা প্রদর্শন করেন।
আপনি যখন খাঁটি মনেই নিজেকে কিছুটা খামখেয়ালিভাবে উপস্থাপন করবেন লোকে আপনার দিকে তাকিয়ে উপহাসের হাসি না হেসে বরং আপনার সঙ্গে হৃদ্যতাপূর্ণ হাসি হাসবে।

৬. অন্যের মধ্যে নিজের সম্পর্কে ভালোলাগা ছড়িয়ে দিতে পারদর্শী
এরা আপনাকে নিজের সম্পর্কে খোলাখুলিভাবে কথা বলানোতে বেশ পারদর্শী। এরা খোলা প্রশ্ন করেন। এরা আন্তরিকভাবেই জানতে চান আপনি কী ভাবেন। আর এটাই আপনাকে বিস্ময়কভাবে খোলাখুলি কথা বলতে উৎসাহিত করে। নিজেকে তখন আপনার বিশ্বের সবচেয়ে আকর্ষণীয় নারী বা পুরষ মনে হবে। আর আপনিও তাদেরকে আপনার মধ্যে এমন অনুভূতি ছড়িয়ে দেওয়ার জন্য পছন্দ করবেন।

৭. এরা সকলের সঙ্গে একই আচরণ করেন
কমনীয় লোকেরা সকলের সঙ্গেই একইরকম আচরণ করেন। এরা সকলকেই সম্মান ও দয়া প্রদর্শণ করেন।

৮. এর সহজেই কারো নাম মনে রাখতে পারেন
কমনীয় লোকেরা সহজেই অন্যদের নাম মনে রাখতে পারেন। এমনকি ছোটখাটো বিস্তারিত বিবরণসহ এর তা করতে পারেন। যা অনেক সময় বিস্ময়ের উদ্রেক করে। আর আমরাও সাধারণত যারা আমাদেরকে স্মরণে রাখে তাদেরকে পছন্দ করি।

৯. এরা কখনোই নাম জপ করেন না
এরা হয়তো বিখ্যাত লোকদের জানেন। কিন্তু তা নিয়ে কথা বলেন না। আর এতে তাদের কমনীয়তা আরো বাড়ে বৈ কমে না।

১০. এরা সবসময়ই আপনাকে বেশি বলতে দেন
যা আপনার মধ্যে নিজেকে গুরুত্বপূর্ণ ভাবার প্রবণতা সৃষ্টি করে। আর আপনি আসলে তাই বটে।

সূত্র: বিজনেস ইনসাইডার



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই