মেইন ম্যেনু

সন্তান হয়নি তাই স্ত্রীর গায়ে আগুন!

বিয়ের আট বছর পরও সন্তান না হওয়ায় স্ত্রীর গায়ে আগুন ধরিয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে এক স্বামীর বিরুদ্ধে। আশঙ্কাজনক অবস্থায় ওই নারীকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মালদহ জেলার ইংরেজবাজার এলাকায় গতকাল রোববার রাতে এ ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছে টাইমস অব ইন্ডিয়া।

এদিকে মালদহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসক জানিয়েছেন, গায়ে আগুন লাগার পর বিজলী রাউত নামের ওই নারীর শরীরের ৬০ ভাগ পুড়ে গেছে। আর ঘটনার পর থেকে পলাতক আছেন স্বামী অখিল মণ্ডল। তাঁর পরিবারের বাকি সদস্যরাও পলাতক।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বিজলী জানান, গতকাল রাতে স্বামী মাতাল অবস্থায় এসে তাঁর গায়ে কেরোসিন তেল ঢেলে দেন। তবে স্বামী যে তার গায়ে আগুন দেবেন, সে কথা তিনি ভাবতেও পারেননি বলে জানিয়েছেন বিজলী। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় প্রতিবেশীরা তাঁকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে।

আহত নারীর পরিবারের বরাত দিয়ে পত্রিকাটি জানায়, আট বছর আগে ইংরেজবাজারের মহেশপুর বাগানপাড়ার বাসিন্দা বিজলী রাউতের সঙ্গে বিয়ে হয়েছিল অখিল মণ্ডলের। কিন্তু সন্তান না-হওয়ায় বিয়ের কিছু দিন পর থেকেই শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করত স্বামী অখিল। আর সেই নির্যাতনে শামিল ছিলেন অখিলের মা-বোনও।






মন্তব্য চালু নেই