মেইন ম্যেনু

সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রীর সঙ্গে ইউপি চেয়ারম্যানের বিয়ে, এলাকায় তোলপাড়!

জাকারিয়া শেখ, গোপালগঞ্জ থেকেঃ গোপালগঞ্জের কাশিয়ানি উপজেলার নিজামকান্দি ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান মোহাব্বত হোসেন জুয়েল এর বিরুদ্ধে ১২ বছর বয়সী এক স্কুলছাত্রীকে বিয়ে করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। সপ্তম শ্রেণীতে পড়ুয়া ওই স্কুলছাত্রীকে বিয়ের ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে।

জানা গেছে, ইউপি চেয়ারম্যান মোহাব্বত হোসেন জুয়েল একই এলাকার ভ্যান চালক ঠান্ডু কাজীর নিজামকান্দি উচ্চ বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণী পড়ুয়া স্কুলছাত্রীকে বিয়ে করেন। পরে বিয়ে আইনগত স্বীকৃতি পেতে গত ১৪ আগষ্ট নোটারী পাবলিকের মাধ্যমে এফিডেভিট করেন। নিজামকান্দি উচ্চ বিদ্যালয় সূত্রে জানা গেছে, ভর্তি রেজিষ্টারে ওই ছাত্রীর জন্ম তারিখ ১৫ সেপ্টেম্বর ২০০৪। সে হিসাবে বর্তমানে তার বয়স প্রায় ১২ বছর।

৯ আগষ্টের পর ওই ছাত্রী আর স্কুলে আসেনি বলে জানিয়েছে নিজামকান্দি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রঞ্জন মজুমদার। তবে ওই স্কুলছাত্রীর বাবা ঠান্ডু কাজী মেয়ের বিয়ের বিষয়টি অস্বীকার করেন। তিনি জানান,চেয়ারম্যানের সাথে মেয়ের বিয়ে হয়নি, তবে বিয়ের কথা চলছে।

এদিকে ওই ইউপি চেয়ারম্যানের আগের স্ত্রী (এক সন্তানের জননী) এক সপ্তাহ আগে তাকে ডিভোর্স দিয়ে বাবার বাড়ী চলে গেছে।






মন্তব্য চালু নেই