মেইন ম্যেনু

‘সব বাধা কাটিয়ে দেশকে শান্তিপূর্ণ রাষ্ট্রে পরিণত করবোই’

সব বাধা কাটিয়ে বাংলাদেশকে শান্তিপূর্ণ রাষ্ট্রে পরিণত করা দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘সন্ত্রাসীদের সমূলে নির্মূল করে বাংলাদেশকে একটি শান্তিপূর্ণ রাষ্ট্রে পরিণত করবোই। কোনো ষড়যন্ত্রই দেশের অগ্রযাত্রাকে বাধাগ্রস্ত করতে পারবে না।’

শনিবার (০২ জুলাই) ইফতারের পর প্রধানমন্ত্রীর বাসভবন গণভবনে জাতীর উদ্দেশ্যে ভাষণ দেয়ার সময় প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেন। রাজধানীর গুলশানে স্প্যানিস রেস্টুরেন্ট হলি আর্টিসানে সন্ত্রাসী হামলার প্রায় ২২ ঘণ্টা পর জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেন সরকারপ্রধান।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘ইসলাম শান্তির ধর্ম। মানুষকে হত্যা করে শান্তির ধর্মকে কলুষিত করবেন না। আপনারা সঠিক পথে ফিরে আসুন। ইসলামের মর্যাদাকে সমুন্নত রাখুন।’

সন্ত্রাসী, হত্যাকারী ও ইসলামের নামে নাশকতাকারীদের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘দেশের বর্তমান পরিস্থিতিতে হত্যাকারী ও তাদের মদদদাতাদের কাছে আমি জানতে চাই- মানুষকে হত্যা করে আপনারা কী অর্জন করতে চান?’

জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে সকল ভেদাভেদ ভুলে সবাইকে একযোগে কাজ করারও আহ্বান জানান তিনি।

এ সময় গুলশানের হলি আর্টিসান রেস্টুরেন্টে সন্ত্রাসী হামলায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিহত পুলিশ কর্মকর্তাদের স্মরণে ২ দিনের রাষ্ট্রীয় শোক ঘোষণা করেন।

উল্লেখ্য, গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় গুলশান ২ এর ৭৯ নম্বর সড়কে ৫নং বাসার দ্বিতীয় তলায় হলি আর্টিসান রেস্টুরেন্টে হামলা চালায় কয়েকজন অস্ত্রধারী। রেস্টুরেন্টে প্রবেশের সময় তারা বেশ কয়েকটি বিস্ফোরণ ঘটায় এবং গুলি চালায়। এসময় পুলিশের সঙ্গে গুলিবিনিময় হয়। তখনই গুলিবিদ্ধ হয়ে গুরুতর আহত হন বনানী থানার ওসি সালাউদ্দিন, ডিবির এসি রবিউল ইসলাম, পুলিশের দুই কনস্টেবল, একজন মাইক্রোবাসচালকসহ ২০ জনের বেশি। গুলশানের ইউনাইটেড হাসপাতালে মারা গেছেন ওসি সালাউদ্দিন এবং এসি রবিউল। এ ঘটনায় ৩ বিদেশিসহ ১৩ জনকে জীবিত উদ্ধার করতে সক্ষম হয় আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই