মেইন ম্যেনু

‘সরকারের টার্গেট তারেক রহমান’

‘এক এগারোর সরকারের মতো’ বর্তমান ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সরকারও বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে টার্গেট করেছে বলে অভিযোগ করেছেন দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন।

মঙ্গলবার বিকেলে জাতীয় প্রেসক্লাবে এক আলোচনা সভায় তিনি বলেন, ‘১/১১ সরকারের টার্গেট ছিলো তারেক রহমান। তার বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে কারাগারে নিয়ে নির্যাতন করেছে, মেরুদন্ড ভেঙ্গে দেওয়া হয়েছে। তাদের মূল উদ্দেশ্য ছিল তারেক রহমানকে হত্যা করা।

‘বর্তমান সরকারও তারেক রহমান, জিয়া পরিবার ও জাতীয়তাবাদী শক্তিকে ভয় পায়। তাই তারা মিথ্যা মামলা দিয়ে তারেক রহমানকে দূরে সরিয়ে রেখেছে।’

তারেক রহমানের ১০ম কারাবরণ দিবস উপলক্ষে এই আলোচনা সভার আয়োজন করে বিএনপি।

২০০৭ সালের ৭ মার্চ তারেককে ঢাকা সেনানিবাসের শহীদ মইনুল সড়কের বাসা থেকে যৌথ বাহিনী গ্রেফতার করে। তার বিরুদ্ধে বেশ কয়েকটি মামলা বিচারাধীন রয়েছে।

খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, ‘১/১১ সরকার নির্বাচনের নামে প্রহসনের নির্বাচন করে আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় বসিয়েছে। তারা মাইনাস টু ফর্মুলার কথা বলে মাঠে নামলেও আসলে মাইনাস ওয়ান করার পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করেছে। তারা দেশি ও বিদেশি চক্রান্তের অংশ হিসেবে খালেদা জিয়াকে মাইনাস করতে চেয়েছিলো।’

প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, ‘বিএনপি চেয়ারপাসন খালেদা জিয়া ও সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান নিয়ে কটাক্ষ করে প্রধানমন্ত্রী যে বক্তব্য দিয়েছেন তা রাজনৈতিক শিষ্টাচার বহির্ভূত কাজ। একটি দলের প্রধান হয়ে অন্য দলের প্রধান সর্ম্পকে যে বক্তব্য দিয়েছেন, আমরা আপনার এই বক্তব্যর তীব্র নিন্দা জানাই।’

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শাহ মোয়াজ্জেম হোসেনের সভাপতিত্বে আরো বক্তব্য রাখেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান সেলিমা রহমান, যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ, সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, যুব বিষয়ক সম্পাদক সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, স্বেচ্ছাসেবক দলের সহসভাপতি মুনির হোসেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক সুকোমল বড়–য়া প্রমুখ।






মন্তব্য চালু নেই