মেইন ম্যেনু

সরকার জামায়াতকে রাজনৈতিক কার্ড হিসেবে ব্যবহার করছে

বর্তমান সরকার সন্ত্রাসের প্রত্যক্ষ মদদদাতা বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আ স ম হান্নান শাহ। তিনি বলেছেন সরকার জামায়াতে ইসলামের মত দলকে রাজনৈতিক কার্ড হিসেবে ব্যবহার করছে।

শনিবার (২৯ জুলাই) জাতীয় প্রসক্লাবে জিয়া পরিষদ আয়োজিত ‘জঙ্গি ও সন্ত্রাস প্রতিরোধে জাতীয় ঐক্য অপরিহার্য’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এ অভিযোগ করেন।

তিনি বলেন, ‘সরকার সন্ত্রাসীদের তথ্য না নিয়ে বিএনপি নেতাদের তথ্য নিতে বেশি ব্যস্ত হয়ে পড়েছে। এই সরকার সন্ত্রাসীদের প্রত্যক্ষ মদদদাতা। এটি একটি অপদার্থ সরকার।’

হান্নান শাহ বলেন, ‘গুলশান হামলার পর শুনেছিলাম একটি রাষ্ট্র বাংলাদেশকে সহায়তার জন্য প্রস্তুতি নিয়েছিল। তাদের সেনাবাহিনীও নাকি প্রস্তুত হয়েছিল। কিন্তু বন্ধুদেশ ভারত সন্ত্রাসের লালন-পালন করে আমাদের সন্ত্রাসবিরোধী উপদেশ দেবে এটা হতে পারে না।’

সরকার জাতীয় ঐক্য চায় না উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘৭১’র পর দেশ মুক্তিযোদ্ধা ও অমুক্তিযোদ্ধায় বিভক্ত করা হয়েছিল। তারা কখনই ঐক্য চায় না। তারা বলছে সন্ত্রাসবিরোধী ঐক্য হয়েছে কিন্তু প্রকৃতপক্ষে জনগণের সঙ্গে তাদের ঐক্য হয়নি। তাদের ঐক্য হয়েছে এক সময়কার গণবাহিনীর ইনুর সঙ্গে।’

তিনি আরও বলেন, ‘জনগণকে সঙ্গে নিয়ে বিএনপি জাতীয় ঐক্য গড়বে। বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের সঙ্গে আলাপ-আলোচনা করা হবে। তখন সরকারকেও আহ্বান জানাব। তাতে সাড়া না দিলে ভাববো তারাও সন্ত্রাসের সঙ্গে জড়িত।’

জামায়াত প্রসঙ্গে বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘হাইকোর্টের রায়ে জামায়াত নিষিদ্ধ হওয়ার পরও সরকার তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়নি। সরকার বলেছিল জুনের মধ্য জামায়াতকে নিষিদ্ধ করা হবে। কিন্তু তারা জামায়াতকে নিয়ে এতো চিন্তা করেন কেন? মূলত সরকার জামায়াতকে রাজনৈতিক কার্ড হিসেবে ব্যবহার করছে।’






মন্তব্য চালু নেই