মেইন ম্যেনু

সরকার বিরোধী নেতাদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হাত দিয়েছে

রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণে সরকার এখন বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হাত দিয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির মুখপাত্র ড. আসাদুজ্জামান রিপন।

তিনি সরকারকে এ ধরণের কর্মকাণ্ড থেকে বিরত থাকার পরামর্শ দিয়ে বলেছেন এটা অব্যাহত থাকলে অর্থনীতির ওপর বিরূপ প্রভাব পড়বে।মঙ্গলবার দুপুরে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ পরামর্শ দেন।

গত রবিবার ফৌজদারি মালমার আসামি হওয়ার কারণে ঢাকা ব্যাংকের পরিচালক পদে মির্জা আব্বাসের পুনঃনিয়োগ আবেদন বাতিল করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। দলের স্থায়ী কমিটির সদস্যের পুনঃনিয়োগের আবেদন বাতিল হওয়ার প্রতিবাদে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

রিপন অভিযোগ করে বলেন, বাংলাদেশ ব্যাংক সম্পূর্ণ রাজনৈতিক উদ্দেশ্য প্রণোদিত হয়ে মির্জা আব্বাসকে পরিচালক পদে পুনঃনিয়োগ দেয়নি। তিনি এই সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারেরর দাবি জানান।

রিপন বলেন, “মির্জা আব্বাস ঢাকা ব্যাংকের একজন উদ্যোক্তা পরিচালক।বলা হয়েছে, পল্টন থানার একটি মামলায় তিনি (আব্বাস) পলাতক থাকায় তাকে পুনঃনিয়োগ দেয়া হয়নি।এটা সম্পূর্ণ অসত্য।তিনি পল্টন থানার মামলায় পলাতক নন। শুধুমাত্র রাজনৈতিক উদ্দেশে বিরোধী দল করার কারণে বাংলাদেশ ব্যাংক আর্থিক প্রতিষ্ঠানের পদে পুনঃনিয়োগ দেয়া হয়নি।”

বাংলাদেশ ব্যাংকের এমন সিদ্ধান্ত বাতিলের দাবি জানিয়ে তিনি বলেন, যেখানে বাংলাদেশ ব্যাংক গোটা আর্থিক ব্যবস্থাপনায় শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে ব্যর্থ হয়েছে। রাষ্ট্রায়ত্ব ব্যাংকগুলো লুটপাটের কারণে রুগ্ন হয়ে গেছে সেখানে কোনো পদক্ষেপ নিতে পারছে না। তবে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নরসহ কেউ এর দায় এড়াতে পারে না।”

তিনি অভিযোগ করে বলেন, “রাষ্ট্রায়ত্ব এসব ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদে সরকারি দলের লোকজন দুর্নীতির সঙ্গে জড়িত থাকার পরও আবার নিয়োগ দেয়া হচ্ছে।

কিন্তু মির্জা আব্বাসকে ঢাকা ব্যাংকে পুনঃনিয়োগ দেয়া হয়নি। শুধুমাত্র রাজনৈতিক উদ্দেশে এটা করা হয়েছে। আমরা এই সিদ্ধান্ত বাতিলের দাবি জানাই।”

এমন সিদ্ধান্তের মাধ্যমে বাংলাদেশ ব্যাংক দেশে একটি নজির স্থাপন করেছে বলেও দাবি করেন বিএনপির এই মুখপাত্র। তবে বিএনপি ক্ষমতায় গেলে এমনটা করবে না বলে প্রতিশ্রুতি দেন তিনি।

সরকারি কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের জন্য ঘোষিত পে-স্কেল প্রসঙ্গে জানতে চাইলে রিপন বলেন, এ বিষয়ে ভালো করে জেনেশুনে ও বুঝে প্রতিক্রিয়া জানানো হবে।”






মন্তব্য চালু নেই