মেইন ম্যেনু

সরে গেছে শ্রমিকরা, যান চলাচল স্বাভাবিক

রাজধানীর দক্ষিণ কমলাপুরে বাসচাপায় শ্রমিক নিহত হওয়ার ঘটনায় সড়ক অবরোধ তুলে নিয়েছে পোশাক শ্রমিকরা।

সকাল থেকে শুরু হওয়া অবরোধ একসময় চরম আকার ধারণ করলে অতিরিক্ত সংখ্যক পুলিশ সদস্য মোতায়েন করা হয়। এরপর প্রশাসনের উর্দ্ধতন কর্মকর্তারা অবরোধকারীদের সঙ্গে কথা বললে দুপুর ২টার দিকে তারা সরে যান।

মতিঝিল বিভাগের ডিসি আনোয়ার হোসেন বলেন, ‘আমরা কথা বলার পর তারা নিজে থেকেই রাস্তা ছেড়ে দিয়েছেন। কোনো প্রকার ফোর্স করতে হয়নি।’

সকালে অলিও অ্যাপারেলস লিমিটেডের পোশাক শ্রমিকরা সড়কে অবস্থান নেন। একপর্যায়ে পুলিশ তাদের সরিয়ে দেয়। এরপর বেলা বাড়ার সঙ্গে বেশি সংখ্যক শ্রমিক জমায়েত হলে দ্বিতীয় দফায় ফের সড়ক অবরোধ করেন তারা। এরসময় পার্শ্ববর্তী বেঙ্গল, সরদার, ইথিক্যাল, বিন্নি, ইকুব, সুপ্রিম প্রভৃতি গার্মেন্টসের কর্মীরাও এসে যোগ দেন।

এদিকে এ ঘটনায় মুগদা বিশ্বরোডে বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা বলাকা পরিবহনের বাসও ভাঙচুর করেন। অবশ্য পুলিশ এসে বিক্ষোভকারীদের সরিয়ে দিলে বেলা সাড়ে ১২টার দিকে মুগদা রোডে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।

প্রসঙ্গত, সোমবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে সায়েদাবাদ-গাজীপুর রুটে চলাচলকারী বলাকা পরিবহনের একটি বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পথচারী-রিকশা আরোহীদের চাপা দিলে এ হতাহতের ঘটনা ঘটে। রোববার রাতেও যাত্রাবাড়ীতে কাভার্ড ভ্যানের চাপায় এক শিশুসহ দুজন নিহত হয়।






মন্তব্য চালু নেই