মেইন ম্যেনু

সর্বনাশা মেঘনার ভাঙনে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ ৩শ বসতঘর বিলীন

চাঁদপুর: সর্বনাশা মেঘনার ভাঙনে হাইমচর ইউনিয়নের মোল্লাকান্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়সহ চরে বসবাসরত প্রায় ৩শ বসতঘর এবং ২টি মাছের আড়ৎ নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। ভাঙনে চরাঞ্চলের লোকজন প্রতিনিয়ত ভিটামাটি হারানোর ভয়ে আতঙ্কের মাঝে বসবাস করছে। প্রতিদিন ভাঙনের কবলে অনেক ভূমি নদীগর্ভে বিলীন হয়ে যাচ্ছে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, হাইমচর ইউনিয়নের চরাঞ্চলের ছেলেমেয়েদের একমাত্র বিদ্যাপীঠ মোল্লাকান্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাকা ভবনটি গত বৃহস্পতিবার কয়েক মিনিটের মধ্যে নদীগর্ভে চলে যায়। এছাড়া ওই দিন হাবিব গাজী ও সৈয়দ চকিদারের মাছের আড়তসহ বেশ কয়েকটি দোকান মেঘনার ভাঙনে চিরতরে তলিয়ে যায়। ফলে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলো সব কিছু হারিয়ে এখন বিলাপ করছে।

এ ব্যাপারে হাইমচর ইউপি চেয়ারম্যান মো. শাহাদাত সরকার জানান, হাইমচর ইউনিয়ন বর্তমানে মেঘনার ভাঙনে আতঙ্কে রয়েছে। নদী ভাঙনে শত শত পরিবার ভিটামাটি হারা হয়ে পড়েছে। অনেকেরই বসতঘর নদীর গর্ভে বিলীন হয়ে গেছে।

তিনি আরো জানান, হাইমচর ইউনিয়নের মোল্লাকান্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাকা ভবনটি নদী ভাঙনের কবলে পড়লে উপজেলা চেয়ারম্যান ও নির্বাহী অফিসারকে জানানো হয় এবং তাদের নির্দেশ মতো কিছু মালামাল উদ্ধার করা হয়। পরে বিদ্যালয়টি নদীতে বিলীন হয়ে যায়।

হাইমচর ইউনিয়নের যেসব পরিবার মেঘনায় ভাঙনের কবলে পড়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে তাদের সরকারিভাবে সহায়তা করার আহ্বান জানান ইউপি চেয়ারম্যান।






মন্তব্য চালু নেই