মেইন ম্যেনু

সর্বোচ্চ আয়ের ১০ বলিউড সুন্দরী

তারা শুধু গ্ল্যামার ডল নয়, অভিনয়ে তারা জয় করেছেন দেশের গন্ডি ছাড়িয়ে বিশ্ববাসীর হৃদয়। তবে বলিউড সুন্দরীরা কিন্তু ব্যাংক ব্যালেন্সের দিকেও যথেষ্ট মনোযোগী! অবশ্য নায়ক শাসিত ইন্ডাস্ট্রিতে অভিনয়ের মাধ্যমে অর্থের যোগান নায়িকাদের জন্য খুব একটা সহজ নয়। থ্রিস্টল ওয়েবসাইটের হিসাব অনুযায়ী এ সর্বোচ্চ আয়ের ১০ অভিনেত্রী-

ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন: বিশ্বসুন্দরীর মুকুট জয় করে ক্যারিয়ারের শুরু করেন তিনি। তারপর থেকে মসৃণ গতিতেই এগিয়েছেন, সাফল্য পিছু ছাড়েনি কখনও। কোন কোন ছবি বক্স অফিস কাঁপাতে না পারলেও বড় কোন ব্যর্থতার স্বাদ পাননি রাইনন্দিনী। আন্তর্জাতিক অঙ্গনেও তার তারকাখ্যাতি ঈর্ষনীয়। বিবাহিত জীবনেও আদর্শ ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন, তার নিজস্ব সম্পত্তির পরিমাণ সাড়ে তিন কোটি মার্কিন ডলার।

আমিশা প্যাটেল: ‘কহো না পেয়ার হ্যায়’ ছবি দিয়ে বলিউডে স্বপ্নিল অভিষেক করেন আমিশা প্যাটেল। কিন্তু তার পর ক্যারিয়ারের চড়াই উৎরাই কম দেখেননি তিনি। সানি দেওলের সঙ্গে ‘গাদার’ ছবিটি ছাড়া বলার মত অন্য কোন ছবি নেই তার ঝোলায়। অবশ্য দক্ষিণী হালে পানি পেয়েই তার বর্তমান সম্পত্তির পরিমাণ তিন কোটি মার্কিন ডলার।

অমৃতা রাও: ‘ম্যায় হু না’ ছবির পর সুরজ বরজাতিয়ার ‘বিবাহ’ ছবিতে পেয়েছিলেন ঐতিহাসিক সাফল্য। কিন্তু তারপরেই বলিউডে ক্যারিয়ার মুখ থুবড়ে পড়েছে। তবে দক্ষিণে জুড়ি নেই তার, সম্পত্তির পরিমাণ প্রায় দুই কোটি মার্কিন ডলার।

কাজল: বলিউডে মূলধারার বাণিজ্যিক ছবিতে আবেদন আর অভিনয়ের সংজ্ঞাই বদলে দিয়েছিলেন কাজল। ক্যারিয়ারে রীতিমতো ছয়টি ফিল্মফেয়ার অ্যাওয়ার্ড অর্জন করেছেন হাজারো ভক্তের হৃদয়ের রানী। বিয়ে এবং মাতৃত্বের পরেও কমেনি তার জনপ্রিয়তা। মিসেস দেবগনের সম্পত্তির পরিমাণ এক কোটি ৬০ লাখ ডলারের।

ইলেনা ডি’ক্রুজ: বলিউডে ইলেনা আগমন ‘বারফি’ দিয়ে, অবশ্য তার আগেই দক্ষিণী ছবিতে তিনি সুপারহিট। ‘ম্যায় তেরা হিরো’ ছাড়া অন্য তেমন কিছুতেই সাফল্য না পেলেও নিজ প্রদেশে কমেনি তার ব্যবসায়িক সাফল্য। তার সম্পত্তির মূল্যমান প্রায় এক কোটি ৪০ লাখ ডলার।

কারিশমা কাপুর: দীর্ঘদিন ধরে বলিউডি মূলধারার ছবির সফল অভিনেত্রী ছিলেন তিনি। ফ্যাশন সচেতনতার জন্য পেয়েছেন আলাদা প্রশংসা। বিয়ে করে ক্যারিয়ার থেকে দূরে সরে যান কারিশমা। কিন্তু বিচ্ছেদের পরে আবারও তাকে দেখা যাচ্ছে রূপালী পর্দায়। কাপুর খান্দানের কন্যার সম্পত্তির পরিমাণ এক কোটি ২০ লাখ মার্কিন ডলার।

ডিম্পল কাপাডিয়া: ‘ববি’ দিয়ে আলোড়ন তুলেছিলেন সেই ১৯৭৩ সালে। তার পর সময় গেলেও ফুরিয়ে যায়নি ডিম্পলের জাদুকরি আকর্ষণ। নিয়মিত কাজ করেন বলিউডি ছবিতে। তার মোট সম্পত্তি এক কোটি মার্কিন ডলারের।

মল্লিকা শেরওয়াত: ‘খোয়াইশ’ কিংবা ‘মার্ডার’- একসময়ে কেবল শরীরী আবেদনে বলিউডে কাঁপালেও সময়ের সঙ্গে সঙ্গে মল্লিকা শেরওয়াত মাত করেছেন বাইরের দুনিয়াও। মল্লিকার অর্থবিত্ত রীতিমতো এক কোটি মার্কিন ডলার!

প্রীতি জিনতা: অভিনেত্রী পরিচয় প্রীতির জন্য এখন মোটামুটি সাবেক। মালিকানাধীন ‘কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব’ ক্রিকেট দলটি নিয়েই মনোযোগ আর বেশিটা সময় চলে যায়। কিছুদিন পর তার ‘ভাইয়াজি সুপারহিট’ ছবির কাজ শুরু হওয়ার কথা রয়েছে। মিষ্টি হাসির এই অভিনেত্রীর সম্পত্তির মূল্য এক কোটি মার্কিন ডলার।

প্রিয়াঙ্কা চোপড়া: এ বছরে বড় চমক ছিল হলিউডে পদার্পণ। ‘কোয়ান্টিকো’ নামের একটি অ্যাকশন সিরিয়ালে কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করছেন বিশ্বসুন্দরী। তাছাড়া বছরজুড়ে তার জাদুকরী উপস্থিতিও অগ্রাহ্য। প্রিয়াঙ্কার সম্পত্তির পরিমাণ ৮০ লাখ মার্কিন ডলার।






মন্তব্য চালু নেই