মেইন ম্যেনু

সহজ কিছু কৌশলে মন থেকে মুছে ফেলুন দুর্ঘটনার ভীতি!

দুর্ঘটনায় প্রিয় কাউকে চিরতরে হারিয়ে ফেললে কখনো কখনো তাকে মনে করে মানুষ প্রচণ্ড ভয় পায়। বিমান দুর্ঘটনায় এমনটা হলে অনেকের অবস্থা বেশ শোচনিয় হয়ে পড়ে। তখন আরও বেশি ভয় চেপে ধরে। নানা প্রশ্ন উঁকি দেয় মনে, যার কোন যুক্তিসংগত উত্তর নেই।

চলুন জেনে নেই এই ভয়গুলো কিভাবে কাটিয়ে উঠা যায় এবং অস্থির মনকে কিভাবে নিয়ন্ত্রণ করা যায়:

সম্ভাব্য বিষয় থেকে সম্ভবপর বিষয়গুলো আলাদা করুন: আমরা এমন একটি পৃথিবীতে বাস করি, যেখানে অশুভ কাজগুলোই সম্ভব। বাস্তব হল, হাজার হাজার বিমান প্রতিদিন যাত্রা করে তাদের গন্তব্যে পৌঁছায়। ধরে নিন, আপনার বিমানটি যেখানে পৌঁছানোর, সেদিকেই যাচ্ছে। কোন ঝামেলা ছাড়াই আপনি লক্ষ্য ছুঁতে পারছেন কিংবা আপনার সন্তান স্কুলে নিরাপদ আছে।

বেশি দুশ্চিন্তাপ্রবণ হলে দুঃসংবাদ শোনা বাদ দিন: সতর্ক থাকুন দুর্ঘটনা বিষয়ক কতটুকু সংবাদ আপনি নিতে পারছেন। কিছু মানুষের ক্ষেত্রে সংবাদ একটি নেশা, তারা প্রতিমুহূর্তে সংবাদের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতে চায়। বাকীদেরকে দুর্ঘটনার একটানা সম্প্রচার অসুস্থ করে তোলে। তাই নিজের সীমাবদ্ধতার প্রতি খেয়াল রাখুন।

সন্তানের সামনে ভয় প্রকাশ থেকে বিরত থাকুন: মনে রাখবেন, আপনার সন্তান আপনার কথা শুনে থাকবে হয়তো। এবং একই ভয় মাস ধরে কিংবা বছর ধরে তাকে পেয়ে বসবে। আপনার ভয় কেটে যাওয়ার পরও তা আপনার সন্তানকে মানসিকভাবে অসুস্থ করে তুলবে। তাই ছোটদের মধ্যে ভয় ছড়াবেন না। তাদের নিরাপদ রাখুন।

অন্যদের উপকার করে ক্ষমতা উপভোগ করুন: কোন মানুষ ক্ষমতাহীন থাকতে পছন্দ করে না। আপনি হয়তো, পরিস্থিতির পরিবর্তন করতে পারবেন না। কিন্তু আপনি যদি চেষ্টা করেন, অনেক কিছু আপনার নিয়ন্ত্রণে মনে হবে। রেড ক্রস কিংবা কোন দাতব্য প্রতিষ্ঠানে স্বেচ্ছাসেবা দিন। পরিবারের জন্য প্রার্থনা করুন। তাদের ভালবাসুন, নিজের কাছে রাখুন। দেখবেন ভয় অনেকটা কেটে গেছে।






মন্তব্য চালু নেই