মেইন ম্যেনু

সাকা-মুজাহিদের পরিবারের সদস্যরা কারাগারের ভেতরে

সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী ও আলী আহসান মোহাম্মাদ মুজাহিদের সঙ্গে দেখা করতে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের ভেতরে ঢুকেছেন তাদের পরিবারের সদস্যরা।

শনিবার রাত ৯টার দিকে কারা ফটকে এসে পৌঁছান সাকা চৌধুরীর পরিবারের সদস্যরা। এর ১৫ মিনিট পরে এসে পৌঁছান মুজাহিদের পরিবারের সদস্যরা। এরপর দুই পরিবারের সদস্যদের কারাগারের ভেতরে নেওয়া হয়।

শনিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে কারাগারের উদ্দেশে বাসা থেকে বের হন মুজাহিদের স্ত্রী, ছেলেসহ পরিবারের অন্য সদস্যরা। মুজাহিদের ছেলে আলী আহমেদ মাবরুর রাইজিংবিডিকে এ তথ্য জানিয়েছেন। তিনি জানান, কারা কর্তৃপক্ষ এ বিষয়ে তাদের চিঠি দিয়েছে।

সাকা চৌধুরীর আইনজীবী হুজ্জাতুল ইসলাম আল ফেসানী কারা কর্তৃপক্ষের চিঠি পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী পরিবারের ১৬ জন সদস্য দেখা করতে এসেছেন। এর মধ্যে তার স্ত্রী ফারহাত কাদের চৌধুরী, দুই ছেলে ফাইয়াজ কাদের চৌধুরী ও হুম্মাম কাদের চৌধুরী, তার পুত্রবধু রয়েছেন।

রাষ্ট্রপতি কাছে চাওয়া প্রাণভিক্ষার আবেদন প্রত্যাখ্যাত হলে এই কারাগারে সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী এবং আলী আহসান মোহাম্মাদ মুজাহিদের ফাঁসির দণ্ড কার্যকর করা হবে।

সাকা-মুজাহিদের প্রাণভিক্ষা চেয়ে রাষ্ট্রপতির কাছে আবেদন করার পর ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার এলাকায় নিরাপত্তা আরও জোরদার করা হয়।

শনিবার সকাল থেকেই নাজিমউদ্দিন রোডে কারাগারের সামনে র‌্যাব-পুলিশের উপস্থিতি বাড়তে থাকে। বিকেলে বিভিন্ন বাহিনীর সদস্য কয়েকগুণ বেড়ে যায়। রাতে আশপাশের দোকান বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই