মেইন ম্যেনু

সাকিব না মুস্তাফিজ, প্লে-অফ থেকে বিদায় নেবে কে?

শীর্ষস্থানটা দীর্ঘ সময় ধরে রাখলেও শেষ পর্যন্ত শীর্ষে থাকতে পারলো না সানরাইজার্স হায়দারাবাদ। শেষ ম্যাচে কেকেআরের কাছে হার আর রয়েল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুর উড়ন্ত পথ চলার কারণে মুস্তাফিজুর রহমানের সানরাইজার্স হায়দারাবাদকে হতে হলো তৃতীয়। তবে শেষ ম্যাচে ইডেন গার্ডেনে এসে কেকেআরের কাছে হেরে নিজেদের সঙ্গে শাহরুখ খানের দলকেও শেষ চারে তুলে নিল সানরাইজার্স।

রোববার রাতেই শেষ হয়ে গেছে গ্রুপ পর্বের সবগুলো ম্যাচ। গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচ শেষে হিসাব-নিকাশের পালা। কে কার মুখোমুখি শেষ চারে? কে উঠছে ফাইনালে? এখন এ হিসাবই চলছে আইপিএলে। পয়েন্ট টেবিল অনুযায়ী শেষ চার নিশ্চিত করেছে যথাক্রমে গুজরাট লায়ন্স, রয়েল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরু, সানরাইজার্স হায়দারাবাদ এবং কলকাতা নাইট রাইডার্স।

আইপিএলে শেষ চার মানে সেমিফাইনাল নয়। কোয়ালিফায়ার এবং ইলিমিনেটর। দুটি কোয়ালিফায়ার এবং একটি ইলিমিনেটর। শীর্ষে থাকা দুটি দল প্রথম কোয়ালিফায়ারে মুখোমুখি হবে। এই ম্যাচে জয়ী দল সরাসরি চলে যাবে ফাইনালে। হেরে যাওয়া দল বিদায় নেবে না। সুযোগ পাবে আরও একটি।

পয়েন্ট টেবিলে তৃতীয় এবং চতুর্থ অবস্থানে থাকা দুটি দল মুখোমুখি হবে ইলিমিনেটর রাউন্ডে। এই ম্যাচে হেরে যাওয়া দল বিদায় নেবে। জয় পাওয়া দল আবার ফাইনালে যেতে হলে বসতে হবে আরও একটি পরীক্ষায়। খেলতে হবে দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ার। প্রথম কোয়ালিফায়ারে হেরে যাওয়া দলের মুখোমুখি হবে তারা। এই ম্যাচে বিজয়ী দল উঠবে ফাইনালে।

সে হিসেবে গ্রুপ পর্বে তৃতীয় এবং চতুর্থ অবস্থানে থাকা সানরাইজার্স হায়াদারাদ এবং কলকাতা নাইট রাইডার্স মুখোমুখি হবে ইলিমিনেটর রাউন্ডে। অথ্যাৎ প্লে-অফে আবারও মুখোমুখি হচ্ছেন সাকিব আল হাসান এবং মুস্তাফিজুর রহমান। যেটাকে বলা যায় নকআউট পর্ব। কারণ হারলেই বিদায়। জয়-পরাজয় তো থাকবেই। সে হিসেবে ফাইনালে ওঠার আগেই বিদায় নিতে হবে সাকিব আল হাসানের কেকেআর কিংবা মুস্তাফিজুর রহমানের সানরাইজার্স হায়দারাবাদকে।

এই দুই দলের যে জিতবে, তার আবার ফাইনাল নিশ্চিত হবে না সরাসরি। গুজরাট এবং আরসিবির মধ্যে পরাজিত দলের মুখোমুখি হতে হবে তাদেরকে, ফাইনালে ওঠার জন্য। সুতরাং, ইলিমিনেটর রাউন্ড থেকে কে বিদায় নেবে? সাকিব না মুস্তাফিজ?

পরিসংখ্যান কিন্তু সাকিব আল হাসানের কেকেআরের পক্ষেই কথা বলছে। কারণ, গ্রুপ পর্বে দু’বার মুখোমুখি হয়েছিল দল দু’টি। প্রথম ম্যাচে নিজেদের মাঠেই শাহরুখ খানের দলের কাছে ৮ উইকেটে হারতে হয়েছিল মুস্তাফিজের সানরাইজার্সকে। গ্রুপ পর্বে নিজেদের একেবারে শেষ ম্যাচে কলকাতার ইডেন গার্ডেনে মুখোমুখি হয়েছিল দু’দল। এই ম্যাচের একদিন আগেও পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষেই ছিল সানরাইজার্স। কেকেআরকে হারাতে পারলে শীর্ষে থেকেই শেষ চারে উঠতে পারবে তারা; কিন্তু সাকিব আল হাসানদের কাছে আবারও হারলো মুস্তাফিজরা। এবার পরাজয়ের ব্যবধান ২২ রানে।

তবে টি-টোয়েন্টিতে কখনও পরিসংখ্যান দিয়ে বিচার করা যায় না। দিল্লির ফিরোজ শাহ কোটলায় টসও একটা বড় ফ্যাক্টর হয়ে দাঁড়াবে। সুতরাং, ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে থাকতে হলে ভাগ্যেরও সহায়তা লাগবে। তারওপর, ব্যাটিং-বোলিং এবং ফিল্ডিং- তিন ডিপার্টমেন্টেই যে যাকে ছাড়িয়ে যেতে পারবে, জয় তার অবধারিত। দিনটা হতে পারে সানরাইজার্সেরও। হতে পারে কেকেআরেরও।

প্লে-অফে কে কার মুখোমুখি

২৪ মে প্রথম কোয়ালিফায়ার গুজরাট লায়ন্স-রয়েল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরু ব্যাঙ্গালুরু রাত ৮.৩০টা
২৫ মে ইলিমিনেটর সানরাইজার্স হায়দারাবাদ-কেকেআর দিল্লি রাত ৮.৩০টা
২৭ মে দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ার প্রথম কোয়ালিফায়ার পরাজিত-ইলিমিনেটর জয়ী দিল্লি রাত ৮.৩০টা


« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই