মেইন ম্যেনু

সাগরভাসাদের ফেরাতে বাংলাদেশকে মিয়ানমারের চাপ

মানবপাচারের শিকার ৫৪৭ নারী-পুরুষকে ফিরিয়ে নিতে চাপ দিচ্ছে মিয়ানমার। দেশটির দাবি, অবৈধভাবে অভিবাসন প্রত্যাশী এরা বাংলাদেশের নাগরিক। অবশ্য বাংলাদেশ সরকার বলছে, পাচার হওয়াদের পরিচয় যাচাইয়ের পরই ফিরিয়ে নেওয়া হবে। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট বিভাগের মহাপরিচালক তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন।

একাধিক কূটনীতিক সূত্রে জানা গেছে, ঢাকায় নিযুক্ত মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূত মাইও মাইন বুধবার সকালে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাকে জানান, মানবপাচারের সময় মিয়ানমারের সীমান্তরক্ষী পুলিশ-বিজিপির হাতে আটক ৫৪৭ বাংলাদেশীকে দ্রুত ফিরিয়ে নেওয়া হোক। কেননা, বর্ষাকাল হওয়ায় আটক বাংলাদেশীদের আশ্রয় দিতে মিয়ানমার সরকারের সমস্যা হচ্ছে।

বাংলাদেশের পক্ষে মিয়ানমারে নিযুক্ত রাষ্ট্রদূতও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে একই তথ্য পাঠিয়েছে। রাষ্ট্রদূত মাইও মাইনের মাধ্যমে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় মিয়ানমারকে জানিয়েছে, খুব দ্রুততার সঙ্গে মানবপাচারের শিকার ৫৪৭ জনের পরিচয় যাচাই করবে বাংলাদেশ। পরিচয় যাচাই শেষ হলেই তাদের ফেরত নেওয়া হবে।

এদিকে গত ৬ জুন পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী জাতীয় সংসদে জানিয়েছেন, থাইল্যান্ড, মালয়েশিয়া এবং ইন্দোনেশিয়ায় মানবপাচারকারীদের খপ্পর থেকে মোট ২ হাজার ৩৮৫ জন বাংলাদেশী নাগরিককে উদ্ধার করা হয়েছে। পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, থাইল্যান্ড থেকে ১৩৮ জন, মালয়েশিয়া থেকে ৭৩৮ জন, ইন্দোনেশিয়া থেকে ৭৮১ জন এবং মিয়ানমার থেকে ৭২৮ জন ভাসমান অভিবাসন প্রত্যাশী বাংলাদেশীকে উদ্ধার করা হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই