মেইন ম্যেনু

সাতক্ষীরার শ্যামনগরে আদি যমুনা পুন:রুদ্ধারে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ

সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলায় জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ইতিহাস খ্যাত আদি যমুনা পুনঃরুদ্ধারের অংশ বিশেষ চরে ১৩ পরিবারের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়। রবিবার এ উচ্ছেদ অভিযান চালানো হয়।
উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি আহসান উল্লাহ শরিফী জানান আদি যমুনার ৪র্থ খন্ডে বংশীপুর মেীজার ৪৭৮/৬৭৪,১ নং দাগে,চিংড়ীখালী মেীজার ১২২৬,১২৪০,ও ৬০০ দাগে মাহমুদপুর মেীজার ১ নং দাগে এবং যমুনা নদীর ৪র্থ খন্ডে ৪৬১ দাগে আহাদুল্যা গাজী, পিং-মৃত গওহর আলী গাজী,শমসের আলী,পিং-তাছের গাজী,শেখ মুনসুর আলী,পিং-সফেদ আলী,কুদ্দুস আরী,পিং-বাস্তুতুল্যা গাজী,গেীর চন্দ্র মন্ডল,পিং-যতিষ চন্দ্র মন্ডল,সহাদেব গায়েন,পিং-হাজারী লাল গায়েন,তোফাজ্জেল হোসেন,পিং-তফিজউদ্দিন,কাওছার আলী,পিং-ফকির আলী গাজী,আবুল সরদার,পিং-পচাবদী গাজী সহ মোট ১৩ পরিবারের এ অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়। তিনি বলেন নোটিশ পাওয়ার পর উচ্ছেদ অভিযানের পূর্বে ৩ টি পরিবার স্থাপনা সরিয়ে নিয়েছেন।

উচ্ছেদ কালীন উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসনের পক্ষে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বিষ্ণু পদ পাল ও সহযোগি হিসেবে ছিলেন শ্যামনগর উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি আহসান উল্লাহ শরিফী,থানা পুলিশ সহ অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ।জানা যায় যমুনা নদীর চরে বেশ কয়েক বছর যাবত এ সকল পরিবার বসবাস করে আসছিলেন।

এ ব্যাপারে উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি আহসান উল্লাহ শরিফী বলেন আইনি প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে তাদের উচ্ছেদ করা হয়েছে এবং আদি যমুনা পুনঃরুদ্ধারে এ উচ্ছেদ অভিযান অব্যাহত থাকবে।






মন্তব্য চালু নেই