মেইন ম্যেনু

সাতক্ষীরায় বাল্য বিবাহকে লাল কার্ড দেখাল সহস্রাধিক শিক্ষার্থী

আবুল কাশেম, সাতক্ষীরা: বাল্য বিবাহ না করার শপথ নিল সাতক্ষীরা সদর উপজেলার ঝাউডাঙ্গা ইউনিয়নের সহ¯্রাধিক শিক্ষার্থী। একই সময়ে তারা প্রত্যেকেই হাত উঁচিয়ে লাল কার্ড দেখিয়ে বাল্য বিবাহকে না বলে স্লোগান দেয়।

বুধবার দুপুরে ঝাউডাঙ্গা হাইস্কুল মাঠে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ ‘শিক্ষাই প্রথম, বাল্যবিবাহকে লাল কার্ড’ প্রতিপাদ্যে বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে এক বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। অনুষ্ঠানে ঝাউডাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শাহ আব্দুল সাদী।

প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন- সাতক্ষীরা-২ আসনের সংসদ সদস্য মীর মোস্তাক আহমেদ রবি। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন- সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান বাবু, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান কোহিনূর ইসলাম, সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সভাপতি আবুল কালাম আজাদ, ঝাউডাঙ্গা ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ খলিলুর রহমান ও বেসরকারি সংস্থা ব্রেকিং দ্য সাইলেন্সের কর্মকর্তা শরিফুল ইসলাম। এর আগে অতিথিবৃন্দ বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে স্থাপিত একটি বিল বোর্ড উদ্বোধন করেন।

এদিকে, অনুষ্ঠানে জানানো হয়, বাল্য বিবাহ প্রতিরোধে ২০১৫ সালে সদর উপজেলায় ৫৫টি মোবাইল কোর্ট পরিচালিত হয়েছে। ঝাউডাঙ্গা ইউনিয়নের ২৪টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বাল্যবিবাহ প্রতিরোধী শিশুকিশোর রেড কার্ড দল গঠন করা হয়েছে। এছাড়া ইউনিয়নের ২০ হাজার ১৬৩জন ছাত্রীকে লাল কার্ড প্রদান করা হয়েছে। যার মাধ্যমে বাল্যবিবাহের ঝুঁকিতে থাকা শিশুদের নিয়মিত তদারকি করা হবে।






মন্তব্য চালু নেই