মেইন ম্যেনু

সাতক্ষীরায় বেড়িবাঁধ ভেঙে গ্রাম প্লাবিত

সাতক্ষীরার আশাশুনি উপজেলার চাকলায় প্রবল জোয়ারের চাপে কপোতাক্ষ নদের বেড়িবাধ ভেঙে একটি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। এতে একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, দেড় শতাধিক পরিবার পানি বন্দী রয়েছে। পানিতে তলিয়ে গেছে শতাধিক মৎস্য ঘের ও ফসলি জমি। শুক্রবার ভোররাতে উপজেলার প্রতাপনগর ইউনিয়নের চাকলা গ্রামের ৭/২ পোল্ডার সংলগ্ন এলাকায় কপোতাক্ষের প্রায় এক’শ ফুট বেড়িবাধ নদীগর্ভে বিলীন হয়ে যায়।

ইউপি সদস্য গোলাম রসুলসহ স্থানীয়রা জানান, আগে থেকেই বাধটি ঝুঁকিপূর্ণ ছিল। দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার মধ্যে হঠাৎ করেই ভোর রাতে বাধ নদী গর্ভে ধসে পড়ে। এতে চাকলা দাখিল মাদ্রাসাসহ দেড় শতাধিক পরিবার, শতাধিক মৎস্য ঘের ও ফসলি জমি তলিয়ে গেছে।

তিনি আরো জানান, এখন নদীতে ভাটা চলছে। স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে এলাকার প্রায় দুই শতাধিক মানুষ বাশ ও মাটি দিয়ে বেড়িবাধ সংস্কারের কাজ শুরু করেছেন।

প্রতাপনগর ইউপি চেয়ারম্যান জাকির হোসেন জানান, পানি উন্নয়ন বোর্ডের গাফিলাতির কারণেই প্রতাপনগর ইউনিয়নবাসীর এই দুর্দশা। বারবার বলা শর্তেও পানি উন্নয়ন বোর্ড ঝুঁকিপূর্ণ বাধ সংস্কারে কোন উদ্যোগ নেয়নি। যা বাজেট আসে তা তারা লুটপাট করে খেয়ে ফেলে। স্থানীয় দুই শতাধিক জনগণকে সাথে নিয়ে বাধ সংস্কারের কাজ শুরু করেছি। চলতি ভাটাতেই বাধ সংস্কার করতে না পারলে পরবর্তী জোয়ারে নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হবে।



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই