মেইন ম্যেনু

আহত-২০ ॥ অস্ত্র ও বোমাসহ গ্রেফতার ৫

সাতক্ষীরায় ভূমিহীন জনপদে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে নিহত দুই

সাতক্ষীরার কালিগঞ্জের চিংড়িখালি ভূমিহীন জনপদে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে দুইজন নিহত ও কমপক্ষে ২০ জন ভূমিহীন আহত হয়েছেন। নিহতরা হলেন, আশরাফ মীর (৫৬) ও ইসহাক পাড় (৫৫)। এসময় ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করা হয়েছে একটি পাইপ গান ও তিনটি তাজা বোমা। সোমবার সকালে কালিগঞ্জ উপজেলার চিংড়িখালি ভূমিহীন পল্লীতে এ ঘটনাটি ঘটে। নিহত আশরাফ মীরের বাড়ি কালিগঞ্জের কাশিবাটি গ্রামে ও ইসহাক পাড়ের বাড়ি একই উপজেলার বালিয়াডাঙ্গা গ্রামে। এদিকে ঘটনা স্থল থেকে পাচজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

সাতক্ষীরা জেলা ভূমিহীন সমিতির সাধারন সম্পাদক আলী নূর খান বাবুল জানান, ২০০৪ সাল থেকে কালিগঞ্জের বৈরাগিরচক-চিংড়িখালি ভূমিহীন পল্লিতে (৯০০ বিঘা সরকারি খাস জমিতে) ৪৪৬ ভূমিহীন পরিবার বসবাস করে আসছে।

সোমবার ভোরে কালিগঞ্জের কাজলা কাশিবাটি গ্রামের আশরাফ মীরের নেতৃত্বে ৫০/৬০ জন অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী ভূমিহীনদের বাড়িঘর থেকে উচ্ছেদের লক্ষ্যে হামলা চালায়। এতে বাধা দিতে গিয়ে তাদের বোমায় আহত হন ভূমিহীন ফিরোজ, গফুর ও মনিসহ বেশ কয়েকজন।

সাতক্ষীরা জেলা ম্যাপহামলাকারীরা সেখানে কমপক্ষে ৪০ টি বোমার বিস্ফোরন ঘটায়। তারা গুলিও ছোড়ে। এতে পুরো এলাকায় আতংক ছড়িয়ে পড়ে।

এসময় স্থানীয় ভুমিহীন নেতা করিম পাড় ও আওয়ামী লীগ নেতা আবুল হোসেনসহ তাদের দলবল সংঘবদ্ধ হয়ে আশরাফ মীর, ইসহাক আলী ও আবুবকরকে ধরে বেধড়ক মারপিঠ করে পুলিশে সোপর্দ করে। পরে পুলিশ তাদেরকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে চিকিৎসারত অবস্থায় কালিগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আশরাফ মীর ও ইসহাক পাড় মারা যায়।

কালিগঞ্জ সার্কেলের সহকারি পুলিশ সুপার মনির হোসেন জানান, দীর্ঘদিন ধরে ওই এলাকায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে আশরাফ মীর গ্রুপ ও করিম পাড় গ্রুপের মধ্যে বিরোধ ছিল। দখল পাল্টা দখল নিয়ে সংঘর্ষ হয়। এতে আশরাফ মীর ও ইসহাক পাড়কে মারাতœক আহত অবস্থায় ভর্তি করা হলে তারা হাসপাতালে মারা যায়। এ ঘটনায় পুলিশ পাঁচজন গ্রেপ্তার করেছে। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই