মেইন ম্যেনু

সাদ্দাম ও গাদ্দাফি বেঁচে থাকলে আইএসের উত্থান হত না : ট্রাম্প

ইরাকের মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত সাবেক স্বৈরশাসক সাদ্দাম হোসেনের প্রশংসা করলেন যুক্তরাষ্ট্রের আসন্ন নির্বাচনে প্রেসিডেন্ট পদে মনোনয়নপ্রত্যাশী ডোনাল্ড ট্রাম্প। স্থানীয় সময় মঙ্গলবার রাতে উত্তর ক্যারোলাইনার রালিগে এক নির্বাচনী সমাবেশে তিনি এ কথা বলেন।

ওই জনসভায় ট্রাম্প বলেন, ‘সাদ্দাম হোসেনকে আমরা একজন খারাপ মানুষ হিসেবেই জানি। ঠিক? কিন্তু তিনি কী করেছিলেন? তিনি সন্ত্রাসীদের হত্যা করেছিলেন। এবং আমার মতে তিনি এটি খুব ভালো কাজ করেছিলেন।’

ওই সমাবেশে ট্রাম্প মন্তব্য করেন, ‘মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে আসলে স্বৈরশাসনই প্রয়োজন।’

প্রকাশিত সংবাদে এপি ও সিএনএন জানায়, চলতি শতকের শুরুতে ইরাকে হামলার পক্ষের অন্যতম সরব মুখ ছিলেন তখনকার ধনী ব্যবসায়ী ডোনাল্ড ট্রাম্প। কিন্তু সম্প্রতি বিশ্বব্যাপী ধারাবাহিক সন্ত্রাসী হামলার কারণে তিনি তার আগের ধারণা থেকে সরে এসেছেন বলে জানিয়েছেন। ট্রাম্প এর আগেও স্বীকার করেছেন, ইরাকে হামলা করা ছিল ‘বড় ভুল’।

চলতি বছরে এক নির্বাচনী সভায় ট্রাম্প বলেছিলেন, ‘এখন আইএসের সবচেয়ে বড় ঘাঁটিগুলোর অন্যতম লিবিয়া ও ইরাক। এখন যদি লিবিয়ার শাসক গাদ্দাফি এবং ইরাকের সাদ্দাম জীবিত থাকতেন, তাহলে সন্ত্রাসবাদ এতটা বিস্তৃত হতে পারত না।’

ট্রাম্প বলেন, ‘আমরা যদি সাদ্দাম হোসেন ও গাদ্দাফিকে ক্ষমতায় রাখতাম, তা হলে উভয় দেশই আরো স্থিতিশীল থাকত এবং সন্ত্রাসীরা ওই সব দেশ দখল করতে পারত না।’ ট্রাম্প আরো বলেন, ‘তাঁরা খারাপ ছিলেন, আসলেই খারাপ ছিলেন, কিন্তু আমাদের রাজনীতিকরা যদি যুদ্ধে না যেতেন তা হলে আমরা আরো ভালো থাকতাম।’






মন্তব্য চালু নেই