মেইন ম্যেনু

সাধারণ যৌনতার চেয়ে ই-সেক্স ভালো! জেনে নিন কী এই ই-সেক্স…

আপনার মনে হঠাৎ জেগে ওঠা যৌন তৃপ্তির জন্য দুটো অপশন দেওয়া হল। ই-সেক্স ও ভার্চুয়াল সেক্স। এদের মধ্যে কোনটা বেছে নেবেন আপনি? আমরা বলব ই- সেক্সটাই ভালো। ভাবছেন তো কেন এমন বলা হচ্ছে? সোজা কথা হল এক্ষেত্রে আপনা হাত জগন্নাথ। সেটাই আপনার একমাত্র ভরসা, আবার সেটাই আপনার তৃপ্তি। কারন রাতবিরেতে আপনার মাথা চারা দেওয়া যৌনতাকে আপনার থেকে বহু দূরে থাকা গার্লফ্রেন্ড কিভাবে সামলাবেন? উপায় এই ই- সেক্স। স্কাইপটা ঝটপট খুলুন আর শুরু হয়ে যান।

এবার জেনে নিন ই-সেক্স কেন দ্য বেস্ট অপশন

১. আপনাকে মুডের ওপর নির্ভর করতে হবে না, শুধু একটু ভালো ভালো ভিডিও হলেই হবে। তবে ভালো ইন্টারনেট কানেকশনটা কিন্তু থাকা চাই চাই, না হলে মাঝ সমুদ্রে লোড শেডিং।

২. আপনার পার্টনারের শরীরের ওপর আপনাকে নির্ভর করতে হচ্ছে না। যা হবে ঝটপট।

৩. ভার্চুয়াল সেক্সের ক্ষেত্রে কোনও ক্ষেত্রে আপনি অসুবিধাজনক অবস্থায় পড়ে যেতেও পড়েন কিন্তু ই –সেক্সের ক্ষেত্রে এই ব্যাপারে আছে ১০০ শতাংশ ভরসা।

৪. ফিল গুডের জন্য আপনি সেক্স টয় দিয়ে আপনার লালসা মিটিয়ে নিতে পারেন। ওপার থেকে শুধু একটু সুরসুরি চাই।

৫. যেহেতু আপনি আপনার পার্টনারকে ছুঁতে পারছেন না সেক্ষেত্রে একটু দুষ্টু মিষ্টি কথা চালিয়ে যেতে হবে। তাহলেই কেল্লা ফতে। শুধু এইটুকু আপনার পার্টনারকে নিশ্চিত করতে হবে আপনি ওঁকে কাছে পেতে কতটা আগ্রহী।

৬. নয়-ছয় কোনও রকম পোজের কিন্ত এই ই-সেক্সে দরকার নেই, যেটা এর সবথেকে বড় প্লাস পয়েন্ট।

৭. ভার্চুয়াল সেক্সের ক্ষেত্রে আবেগ অনেকটাই দরকার পড়ে কিন্তু ই-সেক্স চাই “সির্ফ দিখাওয়া”।

৮. লং ডিসটেন্স রিলেশনশিপের ক্ষেত্রে ই- সেক্স দারুন উপযোগী, আজকাল অত সময় কোথায়? ই-সেক্সই তো ভরসা।

বুঝে গেলেন তো এবার, গ্রীষ্ম কিংবা ভরসা , ই সেক্সই ভরসা।






মন্তব্য চালু নেই