মেইন ম্যেনু

সানি লিওনের সাফল্যের রহস্য জানাচ্ছে সংখ্যাতত্ত্ব

এই মুহূর্তে সফল ভারতীয়দের তালিকা বানাতে বসলে অবধারিতভাবে তাঁর নাম উঠে আসবে। তাঁকে নিয়ে, তাঁর কেরিয়ার নিয়ে বিভিন্ন দৃষ্টিকোণ থেকে আলোকপাত করেছে এবং করে চলেছে গণমাধ্যম। পর্ন ইন্ডাস্ট্রি থেকে বলিউড— সানি লিওনের যাত্রারেখাটিকে নিয়ে চর্চা করেছেন জ্যোতিষশাস্ত্র এবং সংখ্যাতত্ত্ববিদরাও। তাঁদের আলোচনায় উঠে এসেছে ৩৫ বছর বয়সি এই সুন্দরীর সাফল্যের পিছনে থাকা রহস্য। বিশেষ করে সংখ্যাতত্ত্ববিদরা তাঁর সাফল্য বিষয়ে বেশ কিছু তথ্য দিয়েছেন, যা সত্যিই রোমাঞ্চকর।

• সানির জন্ম ১৯৮১ সালের ১৩ মে। নিউমেরোলজি অনুযায়ী, তাঁর ‘রুলিং নাম্বার’ হল ৪ (৩+১)। এমন জাতকের গ্রহ-অবস্থান খুবই আশ্চর্যের হয়। বিশেষ করে রাহু এঁদের চরিত্র গঠনে অগ্রণী ভূমিকা নেয়। এঁরা এমন সব বিন্দু থেকে জীবনকে দেখতে সমর্থ হন, যা অন্য মানুষ সচরাচর পারেন না। এঁদের চরিত্রে তার্কিক হয়ে ওঠার প্রবণতাও থাকে।

• সানির রুলিং নাম্বার ৪ তাঁকে প্রথা ভেঙে বেরনোর শক্তি দান করে। অনেক সময়েই এই শক্তিকে মানুষ ভুল বোঝে। এঁদের অনেক গুপ্ত শত্রুও তৈরি হয়। কিন্তু এঁদের ইচ্ছাশক্তি সেই সব বাধা অতিক্রম করতে এঁদের সাহায্য করে। এঁরা জানেন কতটা এগোতে হয়, কখন এগোতে হয় এবং অবশ্যই খখন নিজেকে নিয়ন্ত্রণ করতে হয়।

• সংখ্যাতত্ত্বের বিচারে সানি একজন সুপরিকল্পী ব্যক্তিত্ব। তাঁর ‘লাইফ পাথ নাম্বার’ হল ১। এমন ক্ষেত্রে জাতক তাঁর কেরিয়ারের জন্য অতুল পরিশ্রম করতে প্রস্তুত থাকেন। যে কোনও উপায়ে তাঁরা লক্ষ্যে পৌঁছতে চান।

• সংখ্যাতত্ত্ব জানাচ্ছে, সানির ‘ইউনিভার্সাল ইয়ার নাম্বার’ এবং ‘পার্সোনাল ইয়ার নাম্বার’ ৮। এমন যোগ জাতকের জীবনে স্থায়িত্ব এনে দেয়।

• সানির ভবিষ্যৎ সম্পর্কেও কথা বলছে সংখ্যাতত্ত্ব। সার্বিক বিশ্লেষণ থেকে জানা যাচ্ছে যে, তিনি ভূসম্পত্তিতে বিপুল অর্থ বিনিয়োগ করতে পারেন। এবং সেই সঙ্গে এ-ও জানা যাচ্ছে যে তাঁর পায়ে কোনও রকমের আঘাত লাগার সম্ভাবনা রয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই