মেইন ম্যেনু

সাপাহারে ঈদ বাজারে নারী ক্রেতার আগমন বেশি

গোলাপ খন্দকার সাপাহার (নওগাঁ) প্রতিনিধি: রমজানের ঐ রোজার শেষে এল খুশির দিন এ দিনটির জন্য নওগাঁর সাপাহারে চলছে কেনাকাটার ধুম অন্য সব ঈদের চাইতে এবার ঈদের বাজারে নারী ক্রেতার সংখ্যায় বেশি চোখে পড়েছে।

সাপাহার উপজেলায় ঈদের আর মাত্র কয়েক দিন বাকি থাকায় মার্কেটে নারী ক্রেতার সমাগম বাড়তেছে। পল্লী নববধূদের কেনাকাটার পদচারণায় মুখরিত হয়ে উঠেছে সাপাহার বাজারের সকল বিপনীবিতান গুলো।

বিপনীবিতান গুলোতে জমজমাট হয়ে উঠছে ঈদের কেনাকাটায়। উপজেলা লাবনী সুপার মার্কেট ,নিউ মার্কেট ,চৌধুরী মার্কেট,হক সুপার মার্কেট ,জনতা মার্কেট এর বিপনীবিতান গুলোতে উপচে পড়া ভীড় লক্ষ করা যাচ্ছে। সকাল থেকেই উপজেলা লাবনী সুপার মার্কেট এর মাসুম গার্মেন্টস এন্ড কøথ ষ্টোর , সুলতা গার্মেন্টস, সৈনিক বস্ত্রালয় ,হক ক্লথ ষ্টোর রুবেল গার্মেন্টস,জুয়েল বস্ত্রালয়,শামীম ফ্যাশন,পরিধান বিচিত্রা, গওছিয়া গার্মেন্টস নিউ মার্কেটে আশা গার্মেন্টস ,বাসমা ফ্যাসন ,অহনা গার্মেন্টস, সৃষ্টি গার্মেন্টস, চৌধুরী মার্কেট এর পলাশ গার্মেন্টস,কাজী বস্ত্রালয়সহ বিভিন্ন বাজারের বিপনী বিতানগুলো ক্রেতা সমাগমে মুখর হয়ে উঠেছে।সদরের সকল মার্কেটের বিপনি বিতান গুলোতে এখন তিল পরিমান ঠাঁই নেই।

প্রায় সকল দোকানদারগন অন্যান্য বছরের তুলনায় এবছর তাদের কালেকশানে বেশ কিছু নতুনত্ব এনেছেন মাসুম গার্মেন্টস এন্ড কøথ ষ্টোর এর মালিক মজিবর ও জাহাঙ্গীর জানান এবার সবর্চ্চ ৭ হাজার থেকে ১২ হাজার টাকা মূল্যের মেয়েদের ফ্লোর র্টাস,ও সোনাক্ষী ড্রেস,৩হাজার টাকা মূল্যের ছেলেদের ইতালীয়ান পেন্ট ১৫ হতে ৪ হাজার টাকা মূল্যের কুটুম পাঞ্জাবী, ২ থেকে ৩ হাজার টাকা মূল্যের গেঞ্জী আরও বাহারি পোশাক আর নতুন ডিজাইনের পোশাকের পসরা সাজিয়ে দোকানীরা ক্রেতা আর্কষন করছে। তবে এবার ঈদে দেশী পোশাকের চেয়ে ভারতীয় পোশাকের চাহিদা বেশি। তবে উঠতি বয়সী ছেলে মেয়েদের আকৃষ্ট করে এমন নাম নিয়ে এবারও বাজারে এসেছে আর্কষনীয় ডিজাইনের সালোয়ার কামিজ শাট প্যান্ট টি শাট। গৃহিনীদের জন্য পিওর সূতী, সাউথ, কানজিবরন, কাতান বেনারশী, জামদানী।

মহিলারা কেনাকাটায় সাপাহার বাজারের ঈদ বাজারকে প্রানবন্ত করেছে। তরুনীরা ঝুকছে ভারতীয় বেশ কিছু আইটেমের দিকে। লেহেঙ্গা, রশমি, নির্জ্ব, পাখি, দুপাট্টা, শেরওয়ানী, তুমি আসবে বলে, কিরনমালা, পাতাবালি তরুনীদেরকে আকৃষ্ট করেছে।

শেষ মহুত্বে জমে উঠেছে উপজেলার ঈদের বাজার। সকল বয়সের নারী পুরুষের সমাহারে জমে উঠেছে এবারের ঈদের বাজার তবে পুরুষের চেয়ে নারী ক্রেতার আগমন বেশি চোখে পড়েছে।

এবার ক্রেতার সংখ্যা আগের তুলনায় অনেক বেশি।মার্কেটে আসা ক্রেতারা বলেছেন,গতবারের তুলনায় এবার জিনিসপত্রের দাম বেশি।ক্রেতার মন কাড়তে বিভিন্ন সাজে সাজিয়েছেন দোকানগুলো ।

আলোক সজ্জা রয়েছে অধিক আংশ মার্কেট গুলোতে।ঘন ঘন লোড সেডিংয়ের কারনে কেউ কেউ নিজস্ব বিদ্যুৎ ব্যবস্থায় সাজাচ্ছেন তার প্রতিষ্ঠান ।এদিকে ঘন ঘন লোড সেডিংয়ের কারনে গরমে অতিষ্ঠ ক্রেতারা ।রোজার আর মাত্র কয়েক দিন আছে এ কয়েক দিন বিদ্যুৎ সেবার মান সহনীয় রাখার দাবি জানান দোকানদারগণ।






মন্তব্য চালু নেই