মেইন ম্যেনু

সাবেক স্বামীকে নিয়ে তিন্নির মন্তব্য

সাবেক প্রেমিক ও পরে স্বামীর উদ্দেশে কিছু মন্তব্য কওে মুখ খুলেছেন শ্রাবস্তী তিন্নি। প্রকাশ্যে নয়। আড়ালে থেকে ফেসবুকে। তা-ও আবার সাবেক প্রেমিক-স্বামী আদনান ফারুক হিল্লোলকে উদ্দেশ্য করে। হিল্লোলের সঙ্গে বিবাদ এবং বিচ্ছেদের পর সম্ভবত এবারই প্রথম ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে কোনো মন্তব্য করলেন তিন্নি।

মন্তব্যে হিল্লোলের প্রতি অভিযোগের আঙুলও তুলেছেন। আল্লাহর কাছে বিচারও চেয়েছেন ফেসবুকে লেখা ওই স্ট্যাটাসে। আলোচিত এবং আবেগী এ স্ট্যাটাসের শুরুটা এমন, ‘আদনান ফারুক হিল্লোলের নাটকই শেষ হতে চায় না।

অতীত ফিরিস্তি ঘেঁটে দেখা যায়, তিন্নি-হিল্লোলের বিবাহ বিচ্ছেদের পর তাদের একমাত্র কন্যা ‘ওয়ারিশা’কে নিয়ে বেশ টানাহেঁচড়া শুরু হয় দুই পরিবারের মধ্যে। তাও ওয়ারিশার বয়স তখন মাত্র ছয় থেকে আট মাস! বিচ্ছেদের প্রথম দিকে বাবা-দাদির (হিল্লোল ও তার মা) সঙ্গে থাকলেও শেষ বছর তিনেক মা-নানি’র হেফাজতেই রয়েছে ওয়ারিশা।

এ নিয়ে গেল বছর হিল্লোল আইনের ও সংবাদ মাধ্যমের শরণাপন্ন হয়েছেন। বিষয়টি নিয়ে একরকম তুলকালাম ঘটে যায় সর্বত্র। কারণ, হিল্লোল ইমোশনালি অভিযোগ তুলেছেন তার পিতৃত্বের অধিকার হরণের। বলেছেন, তার কন্যা ওয়ারিশা নিখোঁজ! বহুদিন তার আদরের কন্যার কোনো হদিস পাচ্ছেন না তিনি।

পরে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, তিন্নির পরিবার কোনোভাবেই চাইছে না ওয়ারিশাকে হিল্লোলের কাছে দিতে। কারণ, হিল্লোলের সংসারে তখন বাসা বেঁধেছেন সময়ের আরেক জনপ্রিয় অভিনেত্রী নওশীন নাহরীন মৌ। তাই তিন্নি পরিবারের একটাই মন্তব্য, সৎ মায়ের সংস্পর্শে দেয়া যাবে না ওয়ারিশাকে।

অন্যদিকে পিতা-অভিনেতা হিল্লোলের মন্তব্যটাও ছিল বেশ কাছাকাছি। তার ভাষায়, তিন্নির যে লাইফস্টাইল তাতে করে তার কন্যার জীবনটাও ধ্বংস হয়ে যাবে। তিনি পিতা হিসেবে কন্যার এমন ক্ষতি করতে পারেন না।






মন্তব্য চালু নেই