মেইন ম্যেনু

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সক্রিয় নারী জঙ্গিরা

অন্যের আইডি ব্যবহার করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সক্রিয় রয়েছেন নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন জেএমবির (নিউ জেএমবি) নারী সদস্যরা। এ ক্ষেত্রে মোবাইল ফোনে নির্দিষ্ট অ্যাপস ব্যবহার করে যোগাযোগ রক্ষা করেন তারা। ঢাকা ও গাজীপুর থেকে জঙ্গি সন্দেহে গ্রেফতার চার তরুণীকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে এমন তথ্য পেয়েছেন র‌্যাব কর্মকর্তারা।

জামাআতুল মুজাহিদীনের (জেএমবি) নেতারা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নারী সদস্য সংগ্রহ করেন। সামাজিক যোগাযোগ্য মাধ্যমে তারা ধর্মভীরু শিক্ষিত তরুণীদের দলে ভেড়ানোর চেষ্টা করেন। তারা নিজেদের ফেসবুক আইডি ব্যবহার করে নারী সদস্যদের জঙ্গি নেতাদের সঙ্গে যোগাযোগের সুযোগ করে দেন বলে র‌্যাব কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

র‌্যাবের দাবি, গ্রেফতার নারী জঙ্গিদের দলে আরো অন্তত এক ডজন তরুণী আছে, যাদের মধ্যে ১০ জনের নাম পেয়েছে র‌্যাব। তারা হলেন, সাফিয়া ওরফে সানজিদা ওরফে ঝিনুক, মাইমুনা ওরফে মাহমুদা ওরফে লায়লা, তাসনুবা ওরফে তাহিরা, সায়লা ওরফে শাহিদা, সালেহা ওরফে পুতুল, দিনাত জাহান ওরফে নওমী ওরফে বানী, তানজিলা ওরফে মুন্নী, আলিয়া ওরফে তিন্নি ওরফে তিতলী, মনিরা জাহান ওরফে মিলি ও ছাবিহা ওরফে মিতু। এই নারী জঙ্গিদেরও খুঁজছে র‌্যাব ও পুলিশ।

তদন্ত সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, গ্রেফতার চার নারী জঙ্গির মধ্যে আকলিমা রহমান মনি জেএমবির দক্ষিণাঞ্চলীয় আমির মাহমুদুল হাসান ওরফে হাসানের ফেসবুক আইডি থেকে ‘আল সাব্বির খান জাবিল’ নামে এক জেএমবি নেতার সঙ্গে যোগাযোগ রাখত। ‘ইসলামী ক্লাস ফর গার্লস পেজ’ এবং ‘ব্লাড রোজ’ নামের ফ্যান পেজ থেকে নিজেদের মধ্যে যোগাযোগ করত তারা। যেসব তরুণী জঙ্গিদের ‘মতাদর্শ’ গ্রহণ করে, তাদের মোবাইল ফোনে কয়েকটি অ্যাপস সরবরাহ করা হয়। এগুলোর মধ্যে ‘উম্মা তাওহিদ’ ও ‘আনসার ইসলামিয়া’ উল্লেখযোগ্য। ‘উম্মু জনদুল্লাহ হুরাইয়া’র মাধ্যমে থ্রিমা অ্যাপ ও একিউআইএস সম্পর্কে তথ্য সংগ্রহ করে তারা।

র‌্যাব-৪ এর অধিনায়ক লুৎফুল কবির জনান, শিক্ষিত তরুণীদের দলে ভেড়ানোর পাশাপাশি অনলাইনে যোগাযোগের মাধ্যমে কার্যক্রম পরিচালনার বিষয়টি খতিয়ে দেখছেন তারা।

গ্রেফতারের পর ওই চার তরুণীর বিরুদ্ধে গত মঙ্গলবার রাতে সন্ত্রাসবিরোধী আইনে মিরপুর মডেল থানায় মামলা করেছে র‌্যাব। এ মামলায় তাদের গ্রেফতার দেখিয়ে বুধবার ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করলে পাঁচ দিনের রিমান্ডের আদেশ দেন আদালত। পুলিশ নারী জঙ্গিদের জিজ্ঞাসাবাদ করে তাদের কর্মকাণ্ড এবং সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের ব্যাপারে তথ্য জানার চেষ্টা করছে।






মন্তব্য চালু নেই