মেইন ম্যেনু

সারাদেশে নির্মিত হবে ৫৬০ মডেল মসজিদ

সৌদি আরবের বাদশাহ সালমান বিন আব্দুল আজিজ আল সৌদ-এর আর্থিক অনুদানে দেশের ৬৪টি জেলা, বিভাগীয় শহর, উপজেলা ও উপকূলীয় এলাকায় মোট ৫৬০টি মডেল মসজিদ নির্মাণ করা হবে। বিশেষ করে ৬৪টি জেলা শহর ও চার বিভাগীয় শহরে লিফটসমৃদ্ধ চার তলাবিশিষ্ট ৬৮টি মসজিদ নির্মাণ করা হবে।

বাকি মসজিদগুলো হবে তিন তলাবিশিষ্ট। এসব মসজিদে প্রতিদিন ৪ লাখ ৪০ হাজার ৪৪০ জন পুরুষ এবং ৩১ হাজার ৪০০ জন নারীর নামাজ আদায়ের ব্যবস্থা থাকবে।

তিন ক্যাটাগরিতে ধাপে ধাপে নির্মিত হবে মসজিদগুলো। ‘এ’ ক্যাটাগরিতে ৬৮টি লিফটসমৃদ্ধ চার তলাবিশিষ্ট মডেল মসজিদ জেলা ও বিভাগীয় সদরে নির্মিত হবে। এ মসজিদগুলোর আয়তন হবে ২ লাখ ৮১ হাজার ৫৮৪ বর্গমিটার।

‘বি’ ক্যাটাগরিতে নির্মিত হবে তিন তলাবিশিষ্ট ৪৭৬টি মসজিদ। এ মসজিদগুলোর আয়তন হবে ১ লাখ ৬৪ হাজার ৭৪২ বর্গমিটার।

সি-ক্যাটাগরিতেও নির্মিত হবে তিন তলাবিশিষ্ট ১৬টি মসজিদ। প্রতিটি মসজিদের আয়তন হবে ৬১ হাজার ২৫ বর্গমিটার।

প্রতিটি মডেল মসজিদে থাকবে লাইব্রেরি সুবিধা। যেখানে প্রতিদিন ৩৪ হাজার পাঠক একসঙ্গে পবিত্র কুরআনুল কারিম, হাদিস ও ইসলামী সাহিত্য পড়ার সুযোগ লাভ করবেন। তাছাড়া ৬ হাজার ৮০০ লোক এসব মডেল মসজিদে ইসলামী বিষয়ে গবেষণার সুযোগ পাবে। তাসবিহ-তাহলিল ও দোয়া মুনাজাতে অংশগ্রহণ করতে পারব ৫৬ হাজার ধর্মপ্রাণ মুসলমান।

মসজিদগুলোয় বিশেষ ব্যবস্থা হিসেবে থাকবে-
>> ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র;
>> লাশ গোসলের কক্ষ;
>> উপকূলীয় এলাকার মসজিদগুলোর নিচ তলা থাকবে উন্মুক্ত;
>> প্রায় আড়াই হাজার দেশি-বিদেশি অতিথির আবাসন ব্যবস্থাও থাকবে মসজিদগুলোতে;
>> প্রতি বছর ১ লাখ ৬৮ হাজার শিশুর প্রাক-প্রাথমিক শিক্ষার সুব্যবস্থা;
>> ১৪ হাজার শিশুর কুরআন হিফজের ব্যবস্থাও থাকবে মসজিদে প্রতিষ্ঠিত মাদ্রাসায়;
>> বিশেষ করে হজ পালনকারীদের জন্য ডিজিটাল হজ নিবন্ধনের ব্যবস্থাও থাকবে মসজিদগুলোতে।

আশা করা যায়, শিগগিরই আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্বলিত মসজিদগুলো নির্মাণ প্রকল্পটি চূড়ান্ত অনুমোদন পাবে।






মন্তব্য চালু নেই