মেইন ম্যেনু

সালথায় কাউলিকান্দা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের কৃতিত্ব ভোলার নয়

ফরিদপুরের সালথা উপজেলার কাউলিকান্দা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বাবু গনপতি চ্যাটার্জীর কৃত্তিত্ব ভোলার নয়। প্রধান শিক্ষক গনপতি চ্যাটার্জী ১৯৫৬ ইং সালের ৫ই আগষ্ট উপজেলার গৌড়দিয়া গ্রামে একটি হিন্দু ধর্ম পরিবারে জম্ম গ্রহন করেন। তার পিতার নাম গোষ্ট বিহারী চ্যাটার্জী ও মাতা প্রভাবতী চ্যাটার্জী। গনপতি ৬ বছর বয়স থেকেই সাড়–কদিয়া ফ্রি প্রাইমারী স্কুলে লেখাপড়া শুরু করেন।

ফ্রি প্রাইমারী স্কুল শেষ করে ভাঙ্গা থানার কাজী ওয়ালি উল¬াহ উচ্চ বিদ্যালয়ে ভর্তি হোন, এখান থেকে ১৯৭২ ইং সালে এস.এস.সি পাশ করে। ১৯৭৪ ইং সালে খুলনা জেলাধীন শাহাপুর মধুগ্রাম মহা বিদ্যালয় থেকে এইচ.এস.সি পাশ করাসহ তিনি কাব্য তীর্থ ও ব্যকারণ তীর্থ পাশ করেন। এর পর ১৯৭৬ সালের ৩ই মে উপজেলার কাউলিকান্দা বে-সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক পদে যোগদান করেন বাবু গনপতি চ্যাটার্জী। জীর্নশীর্ন অবস্থায় কাউলিকান্দা বে-সরকারী স্কুলে দীর্ঘ ৩৮ বছর ন্যায় নিষ্ঠার সাথে প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব পালন করে আসছেন। আগামী ৪ আগষ্ট ২০১৫ ইং তারিখে তার কর্মদিবস শেষ হবে বলে জানা গেছে।

অল্প কিছুদিন আগে এই স্কুলটি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় হলেও বাবু গনপতি চ্যাটার্জী তার ফল নিজে ভোগ করতে পারেন নাই। তবে আগামী দিনের কথা ভেবে পুরো স্কুলটাকে মনের মত সাজিয়ে ডিজিটালে রুপান্তর করতে সক্ষম হয়েছেন।

সরেজমিনে এই স্কুলে গিয়ে দেখা যায়, জেলার যত স্কুল আছে তার মধ্যে অন্যতম পরিবেশ রয়েছে এই স্কুলটিতে। অফিস রুমে চারপাশের দেওয়ালে আকাঁ হয়েছে বিভিন্ন রকমের চিত্র এবং মনিটোরিং বোর্ড সহ সব রকমের প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র। দেখলে একেবারেই চোখ জুড়িয়ে যায়।

এ ছাড়াও এখানে রয়েছে শিশুদের নানা ধরনের খেলনার জিনিস। এসবের পিছনে ঐ স্কুলের প্রধান শিক্ষকের অগনিত শ্রম ও মেধা রয়েছে। অবসরের পর প্রধান শিক্ষক বাবু গনপতি চ্যাটার্জী আজীবন শিক্ষক হিসাবে স্বরনীয় হয়ে থাকবে।






মন্তব্য চালু নেই