মেইন ম্যেনু

সালমানকে নিয়ে যা বললেন কারিনা

সমালোচক থেকে সিনেপ্রেমী সবার মুখে মুখে এখন একটাই কথাই, সালমানের জীবনের সেরা ছবি ‘বাজরঙ্গি ভাইজান’। কারিনা তো আবার একধাপ এগিয়ে বললেন, এই চরিত্রে অভিনয়ের জন্য সালমানের জাতীর পুরস্কার পাওয়া উচিত।

তার জবাবে সালমান বলেন, দর্শকদের ভালোবাসাই তার কাছে জাতীয় পুরস্কার। সবাই জাতীয় পুরস্কারের কথা বলছে শুনে ভালো লাগছে। আমি মনে করি, আরো অনেকেই রয়েছেন যারা আমার থেকেও জাতীয় পুরস্কার পাওয়ার যোগ্য। দর্শকরা এই ছবি দেখে পছন্দ করেছেন, তিন-চারবার করে দেখেছেন -এটাই আমার কাছে জাতীয় পুরস্কার।

‘বাজরাঙ্গি ভাইজান’-এর সাফল্যে উচ্ছ্বসিত সালমান। তিনি বলেছেন, আশা করা হচ্ছিল যে, সিনেমাটি সাফল্য পাবে, দর্শকরা প্রশংসা করবেন। ভারত-পাকিস্তান নিয়ে সিনেমা মানেই সন্ত্রাসবাদ-সেনাবাহিনী। কিন্তু দুই দেশের মানুষেরই যে একটা সাধারণ অনুভূতি রয়েছে তা কখনো দেখানো হয়নি। কখনো মানবিকতাকে দুই দেশকে নিয়ে সিনেমার বিষয়বস্তু করা হয়নি। এ সিনেমায় তাই-ই করা হয়েছে। আর দর্শকরা তা পছন্দ করেছেন।

সালমান জানিয়েছেন, এই সিনেমার জন্য প্রথমে আমির খানকে প্রস্তাব দেয়া হয়েছিল। কিন্তু আমির সালমানের কাছে ওই প্রস্তাব পাঠিয়েছিলেন। এটা আমিরের উদারতা বলেও মন্তব্য করেছেন সালমান।

৩০০ কোটির পর এবার ৫০০ কোটির ঘরে ঢুকতে চলেছে ভাইজান। এরই মধ্যে বিশ্ববাজারে এই ছবি কালেকশন দাঁড়াল ৪৫০ কোটি টাকা। কুড়ি দিনের মাথায় দেশের বাজারে ৩০০ কোটির ক্লাবে ঢুকে পড়েছে ‘বাজরঙ্গি ভাইজান’।

পরিবার থেকে হারিয়ে যাওয়া একটি ছোট পাকিস্তানি মেয়েকে তার দেশে ফিরিয়ে দেয়ার গল্প ‘বাজরঙ্গি ভাইজান’। ছবিতে সালমান-কারিনা ছাড়াও রয়েছেন নওয়াজ উদ্দিন সিদ্দিকি৷ শোনা যাচ্ছে, এ বছর সাউথ কোরিয়ায় অনুষ্ঠিত বুসান আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে দেখান হবে ‘বাজরঙ্গি ভাইজান’।






মন্তব্য চালু নেই