মেইন ম্যেনু

সালমান-শাহরুখকে মুক্তি দিল দিল্লীর আদালত (ভিডিও)

ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দেয়ার অভিযোগ তুলে বলিউড সুপারস্টার অভিনেতা সালমান খান ও শাহরুখ খানের বিরুদ্ধে যে মামলা দায়ের হয়েছিল তা বাতিল করে দিয়েছে দিল্লীর আদালত। সোমবার দুপুরে সালমান-শাহরুখের বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগকে ভিত্তিহীন বলে মামলাটি বাতিল করে আদালত।

জুতাসহ মন্দিরে প্রবেশ করায় ভারতীয় সিনেমার এই দুই খানের বিরুদ্ধে ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত হানার অভিযোগ আনেন এক ব্যক্তি! তার পক্ষ হয়ে আদালতে মামলা দায়ের করেন অ্যাডভোকেট গৌতম গুলাটি। ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত হানার কারণ দেখিয়ে করা এ মামলার রায় ১ জুন আদালতে নির্ধারণ করা হলেও এর আগে মামলার রায় পিছিয়ে ৬ জুন করা হয়। মামলার রায়ের দিকে মোটামুটি সবারই নজর ছিল। কিন্তু সোমবার দুপুরে দিল্লীর আদালত সালমান-শাহরুখের বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ খতিয়ে দেখে মামলাটি আমলে নেননি।

অন্যদিকে পুলিশ এ বিষয়টি চূড়ান্ত করে আগেই জানিয়েছে যে, বিগ বসের শুটিংয়ে মন্দির নির্মাণ করে দৃশ্য ধার হয়েছে। আর সেই মন্দিরের সামনে সালমান ও শাহরুখকে জুতা পায়ে অবস্থায় দেখা গেলেও এটা মোটেও ইচ্ছাকৃত ছিল না। ভিডিও ফুটেজ দেখেও পুলিশ এমনটায় নিশ্চিত করেছে। আদালতও এই বিষয়টি খতিয়ে দেখে শেষ পর্যন্ত সালমান ও শাহরুখের পক্ষ্যে রায় দিল।

প্রসঙ্গত, ভারতের বিতর্কিত টিভি রিয়েলিটি শো ‘বিগ বস’-এর নবম আসরে সালমানের আমন্ত্রণে একটি এপিসোডে হাজির ছিলেন শাহরুখ। আর সেখানেই বিগ বসের জন্য দৃশ্য ধারনের সেটে মন্দিরে জুতো পায়ে প্রবেশ করেন শাহরুখ ও সালমান। একটি ভিডিওতে দেখা গিয়েছে, সেটে মন্দিরে একটি মূর্তি। সামনে জুতো পায়ে শাহরুখ-সালমান। আর এতেই ক্ষেপেন কট্টর হিন্দুবাদী গোষ্ঠি। এমন ঘটনার পর গৌরব গুলাটি নামের এক ব্যক্তি বলিউডের দুই সুপারস্টারের বিরুদ্ধে জেনেশুনে পরিকল্পিত ভাবে ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত করার উদ্দেশ্যে ভারতীয় দণ্ডবিধির ২৯৫ ধারায় মামলা করেন। এমন অভিযোগ আদালতও আমলে নেয়। এই বিষয়ে চূড়ান্ত রায় ১ জুন প্রকাশের কথা থাকলেও তা পিছিয়ে ৬ জুন সোমবার দিন ধার্য করে আদালত। শেষ পর্যন্ত ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দেয়ার অভিযোগ থেকে দিল্লীর আদালত মুক্তি দিলেন সালমান ও শাহরুখকে!






মন্তব্য চালু নেই