মেইন ম্যেনু

সিপিএলের ফাইনালে সাকিবদের দল

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে আজ সাকিব আল হাসানের ১০ বছর পূর্তি। এমন স্মরণীয় দিনে জয়ের আনন্দে বিভোর বিশ্বের অন্যতম সেরা অলরাউন্ডার। ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগ বা সিপিএলের ফাইনালে উঠেছে তাঁর দল জ্যামাইকা তালাওয়াস। আজ বৃষ্টিবিঘ্নিত দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ারে জ্যামাইকা ডাকওয়ার্থ বা লুইস পদ্ধতিতে ১৯ রানে হারিয়েছে ত্রিনবাগো নাইট রাইডার্সকে।

সেন্ট কিটসের ওয়ার্নার পার্কে টস হেরে ব্যাট করতে নামা জ্যামাইকাকে ৭ উইকেটে ১৯৫ রানের বড় সংগ্রহ এনে দিয়েছে আন্দ্রে রাসেলের দুর্দান্ত শতক। মাত্র ৪৪ বলে ১১টি ছক্কায় ঠিক ১০০ রান করে আউট হয়েছেন রাসেল। পাঁচ নম্বরে নামা সাকিব ব্যাট হাতে বেশি কিছু করতে পারেননি। ২৩ বলে ১৯ রান করে বোল্ড হয়ে গেছেন তিনি। জ্যামাইকার পক্ষে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৩৫ রান এসেছে অধিনায়ক ক্রিস গেইলের ব্যাট থেকে।

ব্যাটিংয়ে তেমন সুবিধা করতে না পারলেও বল হাতে দারুণ পারফরম্যান্স সাকিবের। তিন উইকেট নিয়ে জ্যামাইকার জয়ে বড় অবদান বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় ক্রিকেট তারকার।

১৯৬ রানের জয়ের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নামা ত্রিনবাগোর ইনিংসের তৃতীয় ওভার শেষে নেমেছিল প্রবল বৃষ্টি। দীর্ঘক্ষণ বন্ধ থাকার পর খেলা শুরু হলে ১২ ওভারে নতুন লক্ষ্য দাঁড়ায় ১৩০ রান। হাশিম আমলা (৩৭) ও কলিন মুনরো (৩৮) অনেক চেষ্টা করলেও ত্রিনবাগো থেমে গেছে ৭ উইকেটে ১১০ রানে।

সাকিব বল করেছেন মাত্র দুই ওভার। প্রথম ওভারে ১২ রান দিলেও কোনো উইকেট পাননি। তবে দ্বিতীয় ওভারে তাঁর বাঁ-হাতি স্পিন তিনটি উইকেট উপহার দিয়েছে জ্যামাইকাকে। যার মধ্যে একটি ছিল ‘ডেঞ্জারম্যান’ আমলার। ওই ওভারের দ্বিতীয় বলে আমলাকে স্টাম্পিংয়ের ফাঁদে ফেলার পর চতুর্থ বলে সুনীল নারাইন ও শেষ বলে প্রতিপক্ষ অধিনায়ক ডোয়াইন ব্রাভোকে ফিরিয়েছেন সাকিব। তাই তাঁর বোলিং ফিগার (২-০-২৩-৩) যথেষ্ট উজ্জ্বল। দুর্দান্ত শতক ছাড়াও দুটি উইকেট শিকারের সৌজন্যে ম্যাচসেরার পুরস্কার অবশ্য উঠেছে রাসেলের হাতে।

ফাইনালে জ্যামাইকার প্রতিপক্ষ গায়ানা আমাজন ওয়ারিয়র্স। আগামী সোমবার বাংলাদেশ সময় ভোর ৫টায় শুরু হবে সিপিএলের শিরোপা লড়াই।






মন্তব্য চালু নেই