মেইন ম্যেনু

সিয়াম ও কিয়ামের মাস রমজান

রহমত বরকত মাগফিরাত লাভে রোজা পালন এবং রাত জাগরণ করে তারাবিহসহ নফল নামাজ আদায়ের বার্তা নিয়ে প্রতি বছর মুসলিম উম্মাহর মাঝে আগমন করে পবিত্র রমজানুল মুবারাক। তাই এ মাসে প্রত্যেক মুমিন মুসলমান আল্লাহ তাআলার নিকট হৃদয়ের আকুতি ও নিবেদন জানায় পূর্ণ নিষ্ঠা ও আন্তরিকতায়। আর এ আকুতি ও নিবেদন জানানোর মাধ্যমই হলো সিয়াম তথা রোজা পালন এবং কিয়াম তথা তারাবিহ ও নফল নামাজ পালন। সিয়াম এবং কিয়াম প্রসঙ্গে কুরআন-হাদিসের বর্ণনা তুলে ধরা হলো-

আল্লাহ তাআলা বলেন, হে ঈমানদারগণ! তোমাদের ওপর (রমজানের) রোজা ফরজ করা হয়েছে, যেমন ফরজ করা হয়েছিল তোমাদের পূর্ববর্তীদের ওপর; যাতে তোমরা তাক্বওয়া অবলম্বনকারী (আল্লাহভীরু) হতে পার। (সুরা বাক্বারা : আয়াত ১৮৩)

এ মাসের মর্যাদায় হাদিসে এসেছে, হজরত আবু হুরায়রা রাদিয়াল্লাহু আনহু বলেন, যখন রমজান মাসের আগমন হলো, তখন রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ঘোষণা করেন- ‘তোমাদের নিকট বরকতময় মাস রমজান এসেছে। আল্লাহ তাআলা তোমাদের জন্য এ মাসের রোজাকে ফরজ করেছেন।

এ মাসে জান্নাতের দরজাসমূহ খুলে দেয়া হয় এবং জাহান্নামের দরজাগুলো বন্ধ করে দেয়া হয়। আর শয়তানদেরকে শিকলে বন্দী করা হয়।

এ মাসে এমন একটি রাত আছে, যা হাজার মাসের চেয়েও উত্তম। যে এর কল্যাণ লাভে বঞ্চিত হয়, সে তো প্রকৃতপক্ষেই বঞ্চিত। (মুসনাদে আহমদ, নাসাঈ)

সুতরাং আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে রমজান মাস জুড়ে আল্লাহর হুকুম মোতাবেক সিয়াম তথা পানাহার ত্যাগ এবং কিয়াম তথা নামাজ আদায়ের মাধ্যমে রমজানুল মুবারাক অতিবাহিত করার তাওফিক দান করুন। আমিন।






মন্তব্য চালু নেই