মেইন ম্যেনু

সিরিয়ায় রুশ হামলা নিয়ে বৈঠকে বসছে ন্যাটো

সিরিয়ায় রুশ বিমান হামলা নিয়ে আলোচনা করতে ব্রাসেলসে এক বৈঠকে মিলিত হতে যাচ্ছেন ন্যাটো দেশগুলোর প্রতিরক্ষামন্ত্রীরা। রাশিয়ার যুদ্ধবিমানের উপর্যুপরি তুরস্কের আকাশসীমা লঙ্ঘণের অভিযোগ ওঠার পর তারা এ বৈঠকে বসছেন বলে বিবিসি জানিয়েছে।

বিবিসি বলছে, তড়িঘড়ি করে ডাকা ওই বৈঠকে তুরস্কের প্রতি সংহতি প্রকাশ করবেন ন্যাটো মন্ত্রীরা। এছাড়া এ বৈঠকে ইউক্রেন সঙ্কটের নানা দিক নিয়েও আলোচনা হওয়ার কথা রয়েছে। সিরিয়ায় রুশ বিমান হামলা শুরু হওয়ার পর এবারই প্রথম বৈঠকে বসছেন ন্যাটো মন্ত্রীরা। শুরু থেকেই এই রুশ হামলার বিরোধিতা করে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র ও ন্যাটোভুক্ত দেশগুলো।

এর আগে রুশ যুদ্ধবিমানের এক দিনের ব্যবধানে দু বার নিজ দেশের আকাশসীমা লঙ্ঘণের ঘটনায় মস্কোর বিরুদ্ধে কঠোর হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছিলেন তুর্কী প্রেসিডেন্ট রেসেপ তায়িপ এরদোগান। তিনি মস্কোকে সতর্ক করে দিয়ে বলেন,‘তুরস্কের বিরুদ্ধে যে কোনো হামলা ন্যাটোর বিরুদ্ধে হামলা হিসেবে ধরে নেয়া হবে।’ এছাড়া আকাশসীমা লঙ্ঘণের এ ঘটনায় সোমবার রুশ রাষ্ট্রদূতকে দ্বিতীয়বারের মত তলব করেছিল আঙ্কারা সরকার।

তবে রাশিয়া বলেছে, শনিবার মাত্র কয়েক সেকেন্ডের জন্য তুরস্কের আকাশসীমায় ঢুকে পড়েছিল তাদের বিমানটি এবং আবহাওয়া খারাপ থাকার কারণেই এমনটি হয়েছিল। তবে রোববারের আকাশ সীমা লঙ্ঘণ নিয়ে কোনো বিবৃতি দেয়নি মস্কো।

তবে মস্কোর এ ব্যাখ্যা নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছিল ন্যাটো। এক বিবৃতিতে ন্যাটো মহাসচিব ইয়েন্স স্টল্টেনবার্গ বলেছেন, ‘আকাশসীমা লঙ্ঘণের ঘটনাটি দেখে কোন দুর্ঘটনা বলে মনে হয়নি।’ ওই বিবৃতিতে তিনি আরো বলেন, ওই ঘটনায় রাশিয়া এখনো কোনো বাস্তবসম্মত ব্যাখ্যা দিতে পারেনি।






মন্তব্য চালু নেই