মেইন ম্যেনু

সিরিয়া আলোচনায় ইরানকেও আমন্ত্রণ জানানো হচ্ছে

সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বশির আল আসাদের অন্যতম মিত্র দেশ ইরানকে ভিয়েনা আলোচনায় যোগদানের আমন্ত্রণ জানানো হবে বলে যুক্তরাষ্ট্র জানিয়েছে। সিরিয়া সঙ্কট সমাধানের লক্ষ্যে অনুষ্ঠেয় ওই আলোচনায় যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরি, রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লেভারভ এবং আরব ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের প্রভাবশালী কয়েকটি দেশের নেতাদের যোগ দেয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের মুখপাত্র জন কিবরে সংবাদ সংস্থা এএফপি’কে বলেছেন, ‘ভিয়েনা বৈঠকে ইরানকেও আমন্ত্রণ জানানো হবে। আমরা মনে করি, বহুপাক্ষিক ওই আলোচনায় ইরানী নেতাদেরও যোগ দেয়া উচিত।’

ইরান এই বৈঠকে যোগ দিচ্ছে কিনা তাৎক্ষণিকভাবে তা জানা যায়নি। যদিও এ মার্কিন এই উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছে তেহরান।

সিরিয়া সরকারের বন্ধুপ্রতিম দেশ রাশিয়া ও ইরান বরাবরই আসাদকে ক্ষমতায় রেখে সঙ্কট সমাধানের পক্ষে। অন্যদিকে যুক্তরাষ্ট্র ও মধ্যপ্রাচ্যে তাদের অন্যতম মিত্র সৌদি আরব প্রেসিডেন্ট আসাদের পদত্যাগের বিষয়টিকেই সর্বাপেক্ষা গুরুত্ব দিয়ে থাকে। এ নিয়ে মতদ্বৈধতা থাকার কারণেই দীর্ঘ পাঁচ বছর ধরে চলা সিরিয়া গৃহযুদ্ধের সমাধান হচ্ছে না।

ফলে সিরিয়ার গৃহযুদ্ধ বন্ধে এর আগেও আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের বেশ কিছু উদ্যোগ ব্যর্থ হয়েছে।

কিন্তু গত ৩০ সেপ্টেম্বর সিরিয়ার জঙ্গিদের বিরুদ্ধে রাশিয়া বিমান হামলা শুরু করার পর এ নিয়ে নতুন করে আলোচনা শুরু হয়েছে। গত সপ্তাহে ভিয়েনায় মিলিত হয়েছিলেন যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়া, সৌদি আরব ও তুরস্কের প্রতিনিধিরা। এর দ্বিতীয় দফা বৈঠক শুরু হতে চলেছে আগামীকাল বৃহস্পতিবার থেকে।






মন্তব্য চালু নেই