মেইন ম্যেনু

সিরিয়া থেকে আসাদকে সরে যেতে বলেছে সৌদি আরব

সিরিয়ার চলমান সংকট নিরসনে ভিয়েনায় শুক্রবার থেকে শুরু হচ্ছে আলোচনা। এই আলোচনায় সৌদি আরব জানিয়েছে, সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদকে দায়িত্ব থেকে সরে দাঁড়ানোর যে প্রস্তাব তারা করেছে, ইরানকে তা মেনে নিতে হবে।

শুক্রবার থেকে ভিয়েনায় শুরু হওয়া এই আলোচনায় অংশ নেবে বারোটিরও বেশি দেশ। এর মধ্যে যুক্তরাষ্ট্র, জার্মানি, রাশিয়া আর ফ্রান্সের মত বিশ্বশক্তি যেমন রয়েছে, তেমনি থাকছে তুরস্ক, সৌদি আরব আর সিরিয়ার মত বিভিন্ন পক্ষও।

বৈঠক শুরুর আগে বান কি-মুন সমস্যা সমাধানে অংশগ্রহণকারী দেশগুলোকে সক্রিয় ভূমিকা রাখার আহ্বান জানিয়েছেন। ভিয়েনার এই আলোচনায় এবারই প্রথম অংশ নিচ্ছে ইরান। আর ইরানকে সতর্ক করেই সৌদি আরব এই ঘোষণা দিয়েছে। যেন আসাদের পক্ষে ইরান কখনও অবস্থান না নেয়।

তবে রাশিয়া বরাবরই আসাদকে সমর্থন করে আসছে। তারা সেপ্টেম্বরের শেষ দিক থেকে সিরিয়ায় আসাদের বিদ্রোহী দলগুলোর বিরুদ্ধে বিমান হামলা চালিয়ে যাচ্ছে। যদিও তারা দাবি করে থাকে তাদের এসব অভিযান আইএস এবং অন্যান্য জঙ্গিদের লক্ষ্য করেই চালানো হচ্ছে। তবে এ বিষয়ে রাশিয়ার সঙ্গে একমত নয় যুক্তরাষ্ট্র এবং এর মিত্র বাহিনী। কেননা তাদের দাবী চার বছরের বেশি সময় ধরে সিরিয়ায় যে সংঘাত এবং গৃহযুদ্ধ চলছে তা আসাদের কারণেই সংঘটিত হয়েছে। এ কারণে আসাদকে ক্ষমতা থেকে সরে যেতে হবে বলে সতর্ক করেছে তারা।

যুক্তরাষ্ট্র এবং সেওদি আরবের দাবি আসাদের কারনেই চার বছর ধরে চলা সিরিয়ার সহিংসতায় আড়াই লাখের বেশি মানুষ প্রাণ হারিয়েছে। এছাড়া দেশটির মোট জনগণের অর্ধেক মানুষ নিজেদের বাসস্থান ছেড়ে যেতে বাধ্য হয়েছেন। আর এ কারণে যুক্তরাষ্ট্র, তুরস্ক, সৌদি আরব এবং অন্যান্য উপসাগরীয় অঞ্চলগুলো চায় না যে ভবিষ্যতে সিরিয়ায় আসাদের কোনো ভূমিকা থাকুক। এছাড়া সৌদি আরবের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আদেল আল জুবায়ের বলেছেন, সিরিয়া থেকে বাশার আল আসাদকে চলে যেতে হবে এ বিষয়ে কোনো সন্দেহ নেই।’






মন্তব্য চালু নেই