মেইন ম্যেনু

সিরিয়া নিয়ে ‘সহযোগিতায়’ সম্মত রিয়াদ-মস্কো

রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সঙ্গে রোববার একান্তে বৈঠক করেছেন সৌদি যুবরাজ এবং প্রতিরক্ষামন্ত্রী শেখ মোহাম্মেদ বিন সালমান। বৈঠকে দুই নেতা যুদ্ধবিধ্বস্ত সিরিয়ায় শান্তি প্রতিষ্ঠা এবং একটি ‘সন্ত্রাসী খিলাফত’ প্রতিষ্ঠা রোধে কাজ করতে সম্মত হয়েছেন। রুশ ও সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের বরাত বরাত দিয়ে এ খবর জানিয়েছে আরব নিউজ।

রুশ-সৌদি এই সমঝোতা প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদের শক্রুদের সঙ্গে সমঝোতায় পৌঁছুতে মস্কোর সবচেয়ে বড় পদক্ষেপ হিসেবে দেখা হচ্ছে।

বৈঠক শেষে এক বিবৃতিতে এক বিবৃতিতে সের্গেই লাভরভ বলেছেন,‘আমি শুধু এটুকু বলতে পারি আজকের বৈঠকের পর দু দেশের মধ্যে সহযোগিতা গড়ে তোলার বিষয়ে একমত হয়েছে উভয় পক্ষ।’ লাভরভ অবশ্য স্বীকার করেছেন, সৌদি প্রতিরক্ষামন্ত্রী সালমান সিরিয়ায় রাশিয়ার সামরিক হস্তক্ষেপের লক্ষ্য নিয়ে ‘সংশয়’ প্রকাশ করেছেন। তবে তারা বলেছেন, শুধু ইসলামিক স্টেট ও আল-কায়েদা সংশ্লিষ্ট জাভাত আল নুসরার মতো উগ্রপন্থিদের উপর হামলা করা হচ্ছে।

সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবদেল আল জুবাইর ওই বৈঠক সম্পর্কে বলেছেন,‘আমরা সিরিয়ায় রাশিয়া ও ইরান জোটের এই বিমান হামলা নিয়ে আমাদের উদ্বেগ প্রকাশ করেছি। তবে আমাদের রুশ বন্ধুরা আমাদের জানিয়েছেন, তাদের হামলার মূল লক্ষ্য হচ্ছে দায়েশ(ইসলামিক স্টেট) ও সন্ত্রাসবাদ। তিনি আরো জানিয়েছেন, রোববারের বৈঠকে সিরিয়ার বিষয়ে সৌদি আরবের সঙ্গে আরো সামরিক সহযোগিতা বাড়ানোর আগ্রহ ব্যক্ত করেছে রাশিয়া।

সিরিয়ায় রুশ হামলা নিয়ে দ্বিমুখী অবস্থানে রয়েছে মধ্যপ্রাচ্যে যুক্তরাষ্ট্রের অন্যতম মিত্র দেশ সৌদি আরব। একদিকে রাশিয়ার সঙ্গে মতপার্থক্য কমানোর জন্য ভ্লাদিমির পুতিন সঙ্গে বৈঠক করছেন সৌদি প্রতিরক্ষামন্ত্রী। অন্যদিকে, সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী আদেল আল-জুবেইর বলেছেন, আসাদকে অবশ্যই ক্ষমতা থেকে সরে যেতেই হবে।






মন্তব্য চালু নেই