মেইন ম্যেনু

সিরীয় শরণার্থীদের নাগরিকত্ব দেবে তুরস্ক

তুরস্কে অবস্থানরত সিরীয় নাগরিকদের পর্যায়ক্রমে নাগরিকত্ব দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন তুর্কি প্রেসিডেন্ট রেসেপ তায়েপ এরদোয়ান।

শনিবার রাতে সিরিয়ার সীমান্তবর্তী কিলিস প্রদেশে ইফতার শেষে বক্তব্য রাখেন প্রেসিডেন্ট এরদোয়ান। তিনি বলেন,‘আমি কিছু সুসংবাদ ঘোষণা করতে চাই। আমরা আমাদের সিরীয় বন্ধুদের জন্য তুরস্কের নাগরিকত্ব গ্রহণের সুযোগ দিতে চাই। তারা চাইলে এই সুযোগটি গ্রহণ করতে পারবেন।’ পরে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে নাগরিকত্ব নেয়ার বিষয়ে বিস্তারিত জানানো হবে বলেও ঘোষণা দিয়েছেন এরদোয়ান।

তুরস্কে বর্তমানে ২৭ লাখ সিরীয় শরণার্থী রয়েছে। তাদের সবাইকে নাগরিকত্ব দেয়া হবে কিনা সে বিষয়টি খোলসা করেননি এরদোয়ান। আর নাগরিকত্ব পেতে হলে তাদের কোন কোন যোগ্যতা থাকতে হবে সে বিষয়েও কিছু বলেননি তুর্কি প্রেসিডেন্ট।

এরদোয়ান কিলিস অঞ্চলের সিরীয় শরণার্থীদের ভাই ও বোন হিসেবে সম্বোধন করে বলেন, ‘আপনারা নিজেদের জন্মভূমি ও ঘরবাড়ি থেকে বিচ্ছিন্ন হলেও দেশ থেকে কিন্তু দূরে নন। এখন তরস্কই আপনাদের দেশ।’

কিলিসে বর্তমানে ১ লাখ ২০ হাজার শরণার্থী অবস্থান করছে। যদিও আঙ্কারা তাদের শরণার্থীর মর্যাদা দিতে নারাজ। সিরীয় শরণার্থীদের তারা ‘অতিথি’ হিসেবে সম্বোধন করে থাকে। তবে এদের মধ্যে অল্প কিছু সিরীয়কেই কাজ করার সুযোগ দিয়েছে তুর্কি সরকার।






মন্তব্য চালু নেই