মেইন ম্যেনু

সীতাকুণ্ডে দুই জঙ্গি আস্তানার সন্ধান : নারীসহ আটক ২

সীতাকুণ্ড পৌরসভার লামারবাজার এলাকায় একটি জঙ্গি আস্তানায় অভিযান চালিয়ে এক নারী জঙ্গিসহ দুইজনকে আটক করেছে পুলিশ।

ওই দুই জঙ্গির দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে কলেজ রোড এলাকার চৌধুরীপাড়ার আরেকটি জঙ্গি আস্তানায় অভিযান চালিয়েছে পুলিশ।

বুধবার বিকেলে চৌধুরীপাড়ার ছায়ানীড় ভবনের নিচতলার একটি বাসায় অভিযান শুরু করে পুলিশ। এ সময় পুলিশকে লক্ষ্য করে ভেতর থেকে জঙ্গিরা হ্যান্ডগ্রেনেড ছোড়ে।

এতে সীতাকুণ্ড থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি-তদন্ত) মোজাম্মেলসহ দুই পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে। বর্তমানে বাইরে থেকে পুরো ভবনটি ঘিরে রেখেছে পুলিশ।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ১৫ দিন আগে জঙ্গিরা ছায়ানীড় ভবনের নিচতলার বাসাটি ভাড়া নিয়েছিল। ওই ভবনে আরও কয়েকটি পরিবার ভাড়া থাকেন। বর্তমানে আস্তানার ভেতরে নারী ও শিশুসহ তিনজন আছেন। অভিযান শুরুর পর এ পর্যন্ত জঙ্গিরা তিনটি হ্যান্ডগ্রেনেড ছুড়েছে বলে জানা যায়।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, সীতাকুণ্ডের পৌর সদরের আমিরাবাদ এলাকার সাধন কুঠি নামের একটি বাড়ির নিচতলা থেকে আজ বুধবার বেলা ৩টার দিকে দুজন জঙ্গিকে আটক করা হয়।

এর মধ্যে পুরুষ ব্যক্তিটি নিজেকে জসিম উদ্দিন নামে পরিচয় দিয়ে বাড়ি ভাড়া নিয়েছেন। সঙ্গের নারীকে তার স্ত্রী বলেছেন। স্ত্রীর নাম আর্জিনা। তাদের সঙ্গে দুইমাস বয়সী শিশুপুত্র রয়েছে। আর্জিনার কোমরে বোমা বাঁধা ছিল বলে দাবি পুলিশের।

এর আগে জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (উত্তর) মহিউদ্দৌলা রেজা জানান, বুধবার বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে তাদের এই অভিযান শুরু হয়।

সেখান থেকে এক নারী ও এক পুরুষকে আটক করার পর তাদের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে সীতাকুণ্ড কলেজ রোডের প্রেমতলায় শাহীন নামের এক ব্যক্তির বাড়িতে অভিযান শুরু করে পুলিশ। ওই বাড়ি পুলিশ ঘিরে ফেলার পর ভেতর থেকে পরপর কয়েকটি বোমা ছোড়া হয়।

পুলিশ দুইটি বাড়িই ঘিরে রেখেছে। পুলিশের বোমা নিষ্ক্রিয়কারী দল ঘটনাস্থলের দিকে রওনা হয়েছে বলেও জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।






মন্তব্য চালু নেই