মেইন ম্যেনু

সুচিত্রার ভূমিকায় ঋতুপর্ণা

কলকাতার সিনেমায় পরিচালক হিসেবে অভিষেক হতে চলেছে সৈকত ভকতের। আর প্রথম সিনেমাতেই তিনি কাজ করতে চলেছেন ভারতের জাতীয় চলচ্চিত্র পরুস্কার জয়ী নায়িকা ঋতুপর্ণা সেন গুপ্তকে নিয়ে। সবচেয়ে বড় বিষয় সিনেমাটি তৈরি হচ্ছে বাংলা সিনেমার কিংবদন্তি অভিনেত্রী সুচিত্রা সেনের জীবন থেকে অনুপ্রাণীত হয়ে।

মহানায়িকা  শিরোনামের এ সিনেমায় প্রধান চরিত্র শকুন্তলার চরিত্রে অভিনয় করবেন ‍ঋতুপর্ণা। সিনেমাটি সম্পর্কে পরিচালক সৈকত ভকত বলেন, ‘বাস্তবিক জীবনের কোনো বিষয় সিনেমায় ফুটিয়ে তোলা একজন অভিনেত্রীর জন্য খুবই কঠিন। মহানায়িকা সিনেমাটি সুচিত্রা সেনের এবং পৃথিবীর অন্যান্য অঞ্চলের যেমন মেরেলিন মনরো থেকে সোফিয়া লরেনের মতো অভিনেত্রীদের জীবনের রাগ, দুঃখ, অভিমান, উচ্ছ্বাস সবকিছুর প্রতিফলন। একজন নায়িকার মনের সেই সাদা-কালো দিকই এই সিনেমাতে তুলে ধরা হবে।’

তবে পরিচালক সুচিত্রা সেনের কোনো জীবনীকারের সঙ্গে কথা বলেননি। কারণ এটা মহানায়িকার জীবন অবলম্বনে তৈরি করা কোনো বায়োপিক নয়। তবে সিনেমার কিছু ঘটনার সঙ্গে সুচিত্রার জীবনের বেশ কিছু ঘটনার মিল থাকবে।

সিনেমার নাম প্রথমে নায়িকা রাখা হলেও সুচিত্রা সেনের স্টারসুলভ জীবনযাত্রার কথা ভেবে পরিচালক সিনেমার নাম পরিবর্তন করে মহানায়িকা রাখেন।

মহানায়িকা সিনেমাতে গোয়েন্দা প্রিয়ব্রত রায়ের চরিত্রে অভিনয় করবেন ইন্দ্রনীল সেনগুপ্ত এবং সাহেব ভট্টাচার্য সিনেমাতে শকুন্তলার শৈশবের এক বন্ধুর চরিত্রে অভিনয় করবেন। এই সিনেমাতে শকুন্তলার সঙ্গে এক প্রযোজকের প্রেমের কথাও বলা হয়েছে, যে সম্পর্ক পরে তিক্ততায় ভরে ওঠে। জীবনের এই নানা ওঠাপড়া নিয়েই তৈরি হবে মহানায়িকা সিনেমাটি।






মন্তব্য চালু নেই