মেইন ম্যেনু

সুনামগঞ্জে বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি দিকে: ৫ মৃতের লাশ উদ্ধার

তাহিরপুর (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি: সুনামগঞ্জে বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হতে যাচ্ছে। এ পর্যন্ত উদ্ধার করা হয়েছে ৫ মৃতের লাশ। গত ২৪ ঘন্টায় জেলার কোথায়ও ভারি বৃষ্টিপাত না হওয়ায় বন্যার পানি কমতে শুরু হয়েছে। জেলার তাহিরপুর,বিম্ভাম্ভরপুর,ছাতক,দোয়ারা বাজার সীমান্তবর্তী ৪ উপজেলায় পাহাড়ি ঢল ও অতি বৃষ্টিতে সৃষ্ট বন্যার পানি হ্রাস পেয়ে সমতল ও হাওরের সুনামগঞ্জের অন্যান্য উপজেলার নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত করলেও কোথায়ও কোন বড় ধরনের দূঘটনা গঠেনি।

জেলার প্রধান নদী সুরমার পানি পার্শ্ববর্তী কালনী ও কুশিয়ারা নদীতে গিয়ে পতিত হচ্ছে। অনুকূল আবহাওয়া বিরাজ করায় পানিবন্দী লোকজন এখন আশার আলো দেখছেন। মঙ্গলবার সকাল ১১টা পর্যন্ত বন্যার পানির স্রোতে নিখোঁজ হওয়া ৫ জনের লাশ উদ্ধার হয়েছে। গত রবিবার বন্যার পানির স্রোতে ভেসে গিয়ে নিখোঁজ হওয়া সুনামগঞ্জ পৌরসভার নবীনগরের আলমাছ আলীর ছেলে শরাফত আলী (২০),জেলার ধর্মপাশা উপজেলার মলয়শ্রী গ্রামের মৃত লতিচরন দাসের ছেলে লনি দাস (৫৫),ছাতক উপজেলার বোয়ালগাও গ্রামের কামরুজ্জামানের ছেলে ৫ম শ্রেণির ছাত্র তৌহিদুজ্জামান রাশান (১১) ও বদরুজ্জামান খসরুর ছেলে হামিদুজ্জামান আবিদ (৮) এর লাশ উদ্ধার হয়েছে বলে জানিয়েছে স্ব স্ব থানা পুলিশ।

এছাড়া বৃহস্পতিবার পারভেজ আলম (১২) নামের এক কিশোর ছাতক উপজেলার গোবিন্দগঞ্জের বটেরখাল নদীতে সাতার কাটতে গিয়ে নিখোঁজ হয়। সে সিংচাপইড় আলিম মাদরাসার ৬ষ্ট শ্রেণীর ছাত্র ও সিংচাপইড় ইউনিয়নের সদুখালি গ্রামের ইলিয়াছ আলীর পুত্র।

সোমবার সন্ধায় একটি বাঁশের সাঁকোতে আটকে পড়া অবস্থায় তার লাশ উদ্ধার করা হয়। তাহিরপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কামরুজ্জামান কামরুল জানান,তাহিরপুর উপজেলার চার দিকেই শুধু পানি আর পানি আর যদি না বাড়ে তাহলে এলাকার জনসাধারন কিছুটা রক্ষা পাবে। এ পর্যন্ত পাহাড়ী ঢলের পানিতে ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে নিন্মাঞ্চলের অবস্থিত অসহায় লোকজনের।

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোঃ কামরুজ্জামান বন্যার পানিতে নিহতদের লাশ উদ্ধারের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন,বন্যায় নিহতদের পরিবারসহ ক্ষতিগ্রস্থ সকল পরিবারের পূনর্বাসনে জেলা প্রশাসন সবরকম সহযোগীতা অব্যাহত রাখবে। পাউবো জানায় পাহাড়ি ঢল ও বৃষ্টিপাত বন্ধ হওয়ায় নদীর পানি স্থির হয়ে ধীরে ধীরে পানি কমতে যাচ্ছে। অনূকূল আবহাওয়া বিরাজ করলে ৩দিনের মধ্যেই সুনামগঞ্জ বন্যার পানি মুক্ত হবে।






মন্তব্য চালু নেই