মেইন ম্যেনু

সুন্দরবনে আগুনের ঘটনায় বনবিভাগের মামলা

সুন্দরবনের চাঁদপাই রেঞ্জের ধানসাগর স্টেশনের নাংলী ক্যাম্প এলাকায় অগ্নিসংযোগের অভিযোগে স্থানীয় পাঁচ ব্যক্তির নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরও ৪-৫ জনকে আসামি করে মামলা করেছে বনবিভাগ। এ নিয়ে সুন্দরবনে আগুনের ঘটনায় দুটি মামলা দায়ের করা হলো।

মঙ্গলবার বিকেলে সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের চাঁদপাই রেঞ্জের ধানসাগর স্টেশনের কর্মকর্তা সুলতান মাহমুদ বাদী হয়ে বন আইনের ১৯২৭ সালের ২৬ (ক) ও (গ) ধারায় শরণখোলা থানায় মামলাটি দায়ের করেন।

পূর্ব সুন্দরবনের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মো. সাইদুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

শরণখোলা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. আব্দুর রহমান জানান, আসামিদের বাড়ি শরণখোলা উপজেলার ধানসাগর ইউনিয়নের উত্তর রাজাপুর গ্রামে। তারা সুন্দরবনের ওপর নির্ভরশীল। বিভিন্ন সময়ে তারা সুন্দরবনের ক্ষতি সাধন করেছেন যা স্থানীয় লোকজন জানে।

তিনি আরও জানান, সুন্দরবনের জীববৈচিত্রসহ প্রাণিকূলের ক্ষতি সাধন করতে গত ১৩ এপ্রিল প্রথমবারের মতো ওই চক্রটি পরিকল্পিতভাবে অগ্নিসংযোগ করে যার প্রমাণ বনবিভাগের হাতে রয়েছে। এসব তথ্য প্রমাণের ভিত্তিতে বনবিভাগ ছয় জনের বিরুদ্ধে মামলা করে। এতে চক্রটি ক্ষুব্ধ হয়ে পুনরায় গত ১৮ এপ্রিল আবারও সুন্দরবনে পরিকল্পিতভাবে আগুন লাগায়। এতে প্রায় এক একর বনভূমির নলখাগড়া ও বলা জাতীয় গাছপালা পুড়ে যায়।

বনবিভাগের দায়ের করা মামলার এজাহারে উল্লেখ করা আসামিদের গ্রেপ্তারে তারা অভিযান শুরু করেছেন বলেও জানান মো. আব্দুর রহমান।

উল্লেখ্য, গত ২৭ মার্চ, ১৩ এপ্রিল ও ১৮ এপ্রিল তিন দফায় সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের চাঁদপাই রেঞ্জের ধানসাগর স্টেশনের নাংলী ফরেস্ট ক্যাম্প, পঁচাকোড়ালিয়া, আব্দুল্লাহর ছিলা ও নাপিতখালী এলাকায় আগুনে প্রায় দশ একর বনভূমি পুড়ে যায়।






মন্তব্য চালু নেই