মেইন ম্যেনু

যে সুন্দরী ঝাড়ুদারের খোঁজে হাজারো পুরুষ

তার জন্য রিও শহরে অপেক্ষা, কখন সকাল হবে। ভোরের আলো ফুটতেই শহরের পুরুষদের আনন্দ যেন আরো একধাপ। ততটাই বিরক্তি হন মহিলারা। পাড়ায় তার আগমন যেন দমকা বাতাসের মতো।

একবার তাকে দেখতেই ব্যালকনি থেকে রাস্তার ধার। যুবক থেকে প্রৌঢ়ের গিজগিজে ভিড়। রিও শহরে এ দৃশ্য নিত্যদিনের। আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দু রাস্তার এক সাফাইকর্মী। পুরুষ-হৃদয়ে আলোড়ন তোলা বছর তেইশের তরুণী রাস্তার ঝাড়ুদার হলেও রিও-তে কার্যত সেলেব্রিটি।

রাস্তা ঝাড়ু দেয়া, নর্দমা পরিষ্কার করাই পেশা রিটার। সুন্দরী রিটা যখন রাস্তা পরিষ্কার করেন, যারা তাকে চেনেন না, তারা ভাবেন, কোনো নামি মডেল। ইন্টারনেটে এই হট বিউটি-কে সার্চ করে থাকেন কয়েক হাজার মানুষ।

রিও শহরে রিটার নামই হয়ে গেছে, ‘Sweeper Babe’। রিও’র সমুদ্রতটে রিটার বিকিনি শ্যুট সোশ্যাল নেটওয়ার্কে রীতিমতো আলোড়ন ফেলে দিয়েছে। হোয়াটস অ্যাপ-এ রিটার ছবি শেয়ারের সংখ্যা চ্যালেঞ্জ করে ব্রাজিলের যে কোনো নামি মডেলকে।

যদিও রিটা এহেন প্রচার একেবারেই পছন্দ করেন না। তবে তার রূপে যে শহর মাতোয়ারা তা বিলক্ষণ বোঝেন রিটা। সাফাইকর্মী ওই যুবতীর কথায়, এত সুন্দর একটি যুবতীকে রাস্তা সাফ করতে দেখে মানুষ অবাক হয়ে যায়। অনেকে বলেন, আমার কোনো ভালো চাকরি করা উচিত। রাস্তা ঝাড়ু দেয়া আমার কাজ নয়। তবে আমি আমার কাজে গর্বিত। কঠোর পরিশ্রম ছাড়াও প্রচুর মজা করতেও ভালোবাসি।’

রিটা নিজের জনপ্রিয়তাকে কাজে লাগাতে রাস্তা সাফাই ছেড়ে মডেলিংয়ে ক্যারিয়ার শুরুর কথাও ভাবছেন। রিটা যদি রাস্তা রাস্তা সাফাই ছেড়ে দেন, বহু পুরুষের হৃদয় যে ভেঙে যাবে, তাতে সন্দেহ নেই।

সূত্র : ইন্ডিয়ান টাইমস






মন্তব্য চালু নেই