মেইন ম্যেনু

সূরা ফাতিহা নিয়মিত পড়ার উপকারীতা

মানবজাতী কোন দিন যাতে পথভ্রষ্ট না হয়, সেজন্য মহান আল্লাহ তায়ালা মানবজাতীর জন্য পবিত্র কোরআন পাঠিয়েছেন। আর এই কোরআনের প্রথম সূরাটিই হলো সূরা ফাতিহা। সূরা ফাতিহাকে আল কোরআনের ‘মা’ বলা হয়। এই সূরা নিয়মিত পাঠ করলে কি কি উপকার পাওয়া যায়, তা নিচে তুলে ধরা হলো।

সূরা ফাতিহা পাঠের ফজিলত:
সূরা আল ফাতিহা সর্ব রোগের মহৌষধ। এ সূরার আমলের ব্যাপারে হাদিসের নির্দেশণা রয়েছে। এ সূরার আমলের বরকত লাভের কিছু নিয়ম রয়েছে। কিভাবে এ আমল করা যায়, তা উল্লেখ করা হলো-

ক. হযরত জাফর সাদেক রাদিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত আছে যে, সূরা ফাতিহা ৪০ বার পাঠ করে পানির ওপর দম করে কোনো জ্বরে আক্রন্ত লোকের মুখমণ্ডলে ছিঁটিয়ে দিলে, আল্লাহ জ্বর এ সূরার বরকতে জ্বর দূরীভূত করে দেন।

খ. ফজরের নামাজের সুন্নত ও ফরজ নামাজের মধ্যে ৪১ বার এ সূরা পাঠ করে চোখে ফুঁ দিলে চোখের ব্যথা দূর হয়।

গ. রাতের শেষ প্রহরে ৪১ বার এসূরা পাঠ করলে আল্লাহ পাক রিযিক বৃদ্ধি করে দেন।

ঘ. গোলাপ, জাফরান এবং কস্তুরি দিয়ে চিনির রেকাবিতে এ সূরা লিপিবদ্ধ করে তার ধোয়া পানি ৪০ পর্যন্ত রুগ্ন ব্যক্তিকে পান করালে রোগ থেকে মুক্তি লাভ হয়।

ঙ. দাঁতের ব্যথা, পেটের ব্যথা, মাথা ব্যথার জন্যে ৭ বার এ সূরা পাঠ করে দম করলে আল্লাহ পাক ব্যথা দূর করে দেন।






মন্তব্য চালু নেই