মেইন ম্যেনু

‘সেই কথিত বড় ভাই বিএনপি নেতা কাইয়ুম’

বাড্ডা এলাকার প্রাক্তন ওয়ার্ড কমিশনার বিএনপি নেতা এম এ কাইয়ুমের নির্দেশেই ইতালিয়ান নাগরিক তাবেলা সিজারকে হত্যা করা হয়েছে।

মঙ্গলবার রাতে ৭১ টিভিতে অনুষ্ঠিত ‘৭১ জার্নাল’ অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল সরাসরি এ কথা বলেছেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, তাবেলা সিজার হত্যায় জড়িতদের গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদে কথিত সেই বড় ভাইয়ের নাম জানা গেছে। মূলত কাইয়ুমের নির্দেশেই তাবেলাকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। তাকে খোঁজা হচ্ছে।

জানা গেছে, প্রাক্তন ওয়ার্ড কমিশনার এম এ কাইয়ুম বর্তমানে মালয়েশিয়াতে রয়েছেন। আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পরপরই কাইয়ুম দেশ ছেড়ে পালিয়ে যান। প্রয়োজনে তাকে আনতে ইন্টারপোলের সহযোগিতা নেওয়া হতে পারে বলে জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

এর আগে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মঙ্গলবার দুপুরের দিকে সচিবালয়ে সাংবাদিকদের বলেন, যাদের দিয়ে হত্যা করা হয়েছে, তারা মূলত ভাড়াটে খুনি। টাকার বিনিময়ে তারা হত্যাকাণ্ডে অংশ নেয়। বিদেশি নাগরিক হত্যায় রাজনীতিকরা জড়িত। দু-এক দিনের মধ্যে তাদের নাম প্রকাশ করা হবে।

সোমবার দুপুরে ডিএমপি কমিশনার সংবাদ সম্মেলনে বলেন, পুলিশ কথিত বড় ভাইকে খুঁজছে। তাকে খুঁজে পাওয়া গেলে ঘটনার মূল হোতাদের গ্রেফতার করা সম্ভব হবে। আর হত্যায় ব্যবহৃত পিস্তলটিও উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।






মন্তব্য চালু নেই