মেইন ম্যেনু

সেটেলমেন্ট অফিসে ঘুষের টাকাসহ দালালকে ধরিয়ে দিলেন পৌর মেয়র

লাকসাম স্যাটেলম্যান্ট অফিসে ঘুষের টাকাসহ দালালকে ধরিয়ে দিলেন পৌরসভার মেয়র প্রফেসর আবুল খায়ের।

মঙ্গলবার নেছার আহমদকে অবৈধ ভাবে খতিয়ান দেয়ার নামে টাকা আদায় ও জনসাধারণকে হয়রানির অভিযোগে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে ৭ দিনের সাজা প্রদান করা হয়েছে।

স্যাটেলম্যান্ট অফিসের পেসকার ইমাম হোসেন তাৎক্ষণিক ঘুষের টাকা ফেরত দেয়ার অঙ্গীকারে দুই হাত জোড়ে জনতার নিকট ক্ষমা প্রার্থনা করেন।ওই দালালের নাম নেছার আহমদ।সে পাশ্ববর্তী চৌদ্দগ্রাম উপজেলার তিরিশকোট গ্রামের মৃত.রজব আলীর ছেলে।

পুলিশ জানায়,গতকাল সকালে লাকসাম স্যাটেলম্যান্ট অফিসে বিএস ও আরএস নতুন ছাপা খতিয়ান বিলি চলছে। এ সময় পেসকার ইমাম হোসেন খতিয়ান গ্রহিতা সাহিদুল ইসলাম শাহিন, আলী আক্কাছ, মাসুমা, আরব আলী, ইদ্রিছ মিয়ার নিকট থেকে টাকা আদায় করেন।খতিয়ান গ্রহীতার অভিযোগের ভিত্তিতে স্যাটেলম্যান্ট অফিসের দালাল ইমাম হোসেনকে ঘুষের সাড়ে ৪ হাজার টাকাসহ হাতে-নাতে তাকে আটক করে। এ সময় সেটেলমেন্ট অফিসের আরেক অসাধু কর্মকর্তা দৌড়ে পালিয়ে যায়।

সংবাদ পেয়ে উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মহব্বত আলী, থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ মনোয়ার হোসেন, পৌরসভার কাউন্সিলরবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। উপজেলা নিবার্হী অফিসার মোহাম্মদ দেলোয়ার হোসেন দালাল ইমাম হোসেনকে জনগণকে হয়রানি ও প্রতারণার অভিযোগে ৭দিনের সাজা প্রদান করেন।

ওই অফিসের বিরুদ্ধে খতিয়ান দেয়ার নামে বিভিন্ন সময় জনসাধারণের কাছ থেকে ঘুষ গ্রহনের একাধিক অভিযোগ রয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই