মেইন ম্যেনু

সেদিন ‘মিছিলের পুরোভাগেই ছিলেন ছাত্রীরা’

১৯৫২ সালের ২১শে ফেব্রুয়ারি। সেদিন ১৪৪ ধারা ভঙ্গ করবার যে সিদ্ধান্ত হয়, সেদিনের ১৪৪ ধারা ভঙ্গ করে রাষ্ট্রভাষা বাংলার দাবীতে যে মিছিল হয়েছিল সেই মিছিলে অংশ নিয়েছিলেন অনেক নারীরাও।

ইতিহাসের অধ্যাপক সৈয়দ আনোয়ার হোসেন বলছিলেন সেদিনের মিছিলের পুরোভাগেই ছিলেন ছাত্রীরা। মিছিল যখন বেরিয়ে পরিপূর্ণভাবে যখন রাস্তা দিয়ে যাচ্ছিল বেশ কয়জন ছাত্রী মিছিলের সামনেই ছিলেন তারা। নারীদের অংশগ্রহণ পূর্ণমাত্রায় ছিল বলা যায়। কারণ ওই সময় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীদের সংখ্যা হাতে গোনা যেত।

সেই মিছিলের পুরোভাগে নারীদের অংশগ্রহণ থাকলেও তাদের নাম তেমন শোনা যায়না কেন? এ প্রসঙ্গে সৈয়দ আনোয়ার হোসেন বলছিলেন এটা আমাদের দুর্ভাগ্য, আমরা আমাদের ইতিহাস সঠিকভাবে সংরক্ষণ করিনি। যেমনটা মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস করিনি, ওটা নিয়ে বিকৃতির চিত্রই বেশি।

তেমনভাবে ভাষা আন্দোলেনরও ইতিহাস আমরা সংরক্ষণ করিনি। কিন্তু কয়েকজন মহিয়সী নারীর কথা আমরা বলতে পারি যেমন একজন প্রফেসর সুফিয়া আহমেদ, হালিমা বেগম, প্রতিভা মুকসুদ্দি, রওশন আরা বাচ্চু এদের নাম আমরা সবাই জানি। তবে আরও অনেকে ছিলেন, তাদের সবার নাম সংরক্ষণ করা হয়নি। ভাষা আন্দোলনের ইতিহাসের কথা উঠলে লোকের মুখে সালাম রফিক বরকত জব্বার এমন অনেক নাম উঠে আসে। সুত্র: বিবিসি।

কিন্তু এ ক’জন নারীর কথাও তেমন শোনা যায় না এর কারণ হিসেবে মি: হোসেন পুরুষতান্ত্রিকতার প্রভাবকে উল্লেখ করেন। ভাষা আন্দোলনের সঠিক ও পূর্ণাঙ্গ ইতিহাস রচনা করতে নতুন করে উদ্যোগ নেয়া দরকার বলে মনে করে মি: হোসেন। ভাষা আন্দোলন থেকে বাংলা একাডেমী উঠে এসেছে তাই এই উদ্যোগ বাংলা একাডেমীর নেয়া উচিত বলে মনে করেন সৈয়দ আনোয়ার হোসেন।






মন্তব্য চালু নেই