মেইন ম্যেনু

সেন্সর বোর্ডে যাচ্ছে ডিপজল-দিতির ছবি

চলতি মাসে আবারও সেন্সর বোর্ডে জমা পড়বে মনোয়ার হোসেন ডিপজল ও দিতি অভিনীত চলচ্চিত্র ‘এদেশ তোমার আমার’। ছবিটি পরিচালনা করেছেন এফআই মানিক। এর আগে ২০০৯ সালে ছবিটি সেন্সর বোর্ডে জমা পড়লেও ছাড়পত্র পায়নি। কিছু সংশোধন করে আবারও ছবিটি ছাড়পত্র পাওয়ার জন্য প্রস্তুত করা হচ্ছে।

পরিচালক এফআই মানিকবলেন, “‘এদেশ তোমার আমার’ ছবিটি চলতি মাসেই সেন্সর বোর্ডে জমা দেওয়ার জন্য প্রস্তুত করা হচ্ছে। ছবিটি ৩৫ মিলিমিটারে শুটিং করা হয়েছিল। ট্রান্সফার করে ডিজিটাল করা হচ্ছে। এর আগে ২০০৯ সালে সেন্সর কর্তৃপক্ষ কিছু কারেকশন দিয়েছিল, যা সংশোধন করা হয়েছে।”

সেন্সর কী ধরনের পরিবর্তন দিয়েছিল—জানতে চাইলে পরিচালক বলেন, ‘ছবির গল্পে আছে যে একদল ছেলেমেয়ের পরিচয় হয় ফেসবুকের মাধ্যমে। তারা সমাজে সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ায়। সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে তাদের কিছু অ্যাকশন দৃশ্য ছিল ছবিতে। সেসব দৃশ্যে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রতি অশ্রদ্ধা প্রদর্শন করা হয়েছে—এমন অভিযোগ আনা হয় সেন্সর বোর্ডের পক্ষ থেকে। আমি মূল গল্প ঠিক রেখে বিষয়গুলো ঠিক করেছি।’

ছবির গল্প নিয়ে পরিচালক আরো বলেন, “আমি সব সময় সমাজ ও পারিবারিক গল্প নিয়ে ছবি নির্মাণ করি। ‘এদেশ তোমার আমার’ ছবিটিও সামাজিক একটি ছবি। মূল চরিত্রে অভিনয় করেছেন মনোয়ার হোসেন ডিপজল ও দিতি। ডিপজল পুলিশ অফিসার ও ম্যাজিস্ট্রেটের চরিত্রে অভিনয় করেছেন দিতি। তাঁদের পরিবারকে কেন্দ্র করেই ছবির গল্প এগিয়েছে।’

এতদিন কেন ছবিটির কাজ বন্ধ ছিল—জানতে চাইলে পরিচালক বলেন, ‘ছবির প্রযোজক মনোয়ার হোসেন ডিপজল ব্যক্তিগত ব্যবসায় ব্যস্ত ছিলেন, চলচ্চিত্রে সময় দিতে পারছিলেন না। তিনি আবারও চলচ্চিত্র নিয়ে কাজ শুরু করার চিন্তা করছেন, আগে থেমে থাকা ছবিগুলোও শেষ করছেন। তাই এই ছবিটির কাজ নতুন করে শুরু করেছি।’

ছবিটি সেন্সর বোর্ডের ছাড়পত্র পেলে শিগগিরই প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি দেওয়া হবে বলে জানান পরিচালক এফআই মানিক।






মন্তব্য চালু নেই