মেইন ম্যেনু

সৈয়দপুরে ৮ম শ্রেনীর ছাত্রের রহস্যজনক মৃত্যু

নীলফামারী জেলার সৈয়দপুর উপজেলার সৈয়দপুর সরকারী কারিগরী স্কুল এন্ড কলেজের ৮ম শ্রেণীর এক ছাত্রের ঘড়ের সেলিংয়ের সাথে হাত-পা বাঁধা ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ । শনিবার রাত ৯ টায় শহরের টেকনিক্যাল কলেজ পাড়া থেকে ওই ছাত্রের লাশ উদ্ধার করা হয়। মৃত ছাত্রের নাম সাকিবুল হাসান। তার বাবার নাম হাবিবুর রহমান বলে জানা গেছে।

পুলিশ জানায়, শহরের টেকনিক্যাল কলেজপাড়াস্থ সেনাবাহিনীর ওয়ারেন্ট অফিসার মতিয়ার রহমানের বাড়ীতে গত ৩ মাস থেকে বসবাস করে আসছেন নীলফামারী মীরগঞ্জ পাঠানপাড়ার হাবিবুর রহমান সহ তার পরিবার। হাবিবুর রহমান নীলফামারী সদরের ইসলামিয়া ফাউন্ডেশনে চাকুরী করার সুবাদে তিনি গ্রামের বাড়ীতেই প্রায় সময়ই থাকেন। ঘটনার দিন বিকালে সাকিবুল হাসান সৈয়দপুর সরকারী কারিগরী স্কুল ও কলেজে ষান্মাসিক পরীক্ষা শেষে তাদের ওই ভাড়া করা বাসায় ফিরে আসে। ওইদিন বাড়ীতে সাকিবের মা-বাবা কেউই ছিল না। সাকিবের বাবা-মা নীলফামারীতে গ্রামের বাসায় গিয়েছিলেন । সন্ধ্যায় তারা গ্রামের বাড়ী থেকে ফিরে সৈয়দপুরের বাসায় এসে দেখেন মেইন গেট খোলা থাকলেও ঘরগুলি ভিতর থেকে বন্ধ। অনেক ডাকাডাকির পর সাকিবের বাবা বাড়ীওয়ালাকে সাথে নিয়ে পাশের রুমের টিন কেটে দেখেন, তাদের ছেলে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় সেলিংয়ের সাথে ঝুলন্ত অবস্থায় রয়েছে।
ঘটনাটি স্থানীয় থানায় জানালে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ইসমাইল হোসেন ঘটনাস্থল গিয়ে ওই স্কুল ছাত্রের লাশ উদ্ধার করেন। স্কুল ছাত্র সাকিব আত্মহত্যা করেছে নাকি তাকে হত্যা করা হয়েছে এ নিয়ে শহরব্যাপী চলছে নানা গুঞ্জন।
ওসি ইসমাইল হোসেন জানান, ময়না তদন্তের জন্য লাশ নীলফামারী পাঠানো হয়েছে। তদন্ত রিপোর্ট এলেই আত্মহত্যা নাকি হত্যা করা হয়েছে তা জানা যাবে বলে জানান তিনি।






মন্তব্য চালু নেই